স্কুল কক্ষে চলছে না পাঠদান; চলছে গৃহস্থালির কাজ

মোঃ হাসিবুল হাসান,নাটোর জেলা প্রতিনিধি:
নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষের এক দরজা দিয়ে ভিতরে চোকে পড়বে কাঠের আসবাব পত্র সাজানো। পাশের কক্ষে রাখা হয়েছে রড, সিমেন্ট ও আরো দুটি কক্ষের মেঝেতে বিছিয়ে রাখা হয়েছে ধান।চলছে এমন বিভিন্ন গৃহস্থালির কাজ।

এমন ঘটনার জন্ম দিয়েছেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী মিক্ষক আনোয়ারা পারভিন। স্থানীয় সুত্রে জানা যায় উপজেলার বড়পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এর শিক্ষকদের বিরুদ্ধে অনিয়মের ভিযোগ নতুন নয় । বিদ্যালয়ের শিক্ষক স্থানিয় প্রভাবশালি হওয়াই প্রায় দুই মাস ধরে বিদ্যালযের দুটি রুম ব্যাবহার করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় আরও ভিন্ন চিত্র। তিনি বিদ্যালয়ের চারটি কক্ষ ব্যাবহার করছেন। দুটি কক্ষে চলছে ধান শুকানোর কাজ এবং অপর দুটি কক্ষের একটিতে রাখা হয়েছে খাট, সোফা সেট, ওয়াড্রপ সহ কাঠের আরো আসবাব পত্র। আরেকটি কক্ষে রাখা হয়েছে পাইপ, রড, সিমেন্টসহ প্রয়োজনীয় আরো অনেক কিছু। ওই বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক আনোয়ারা পারভিন বিদ্যালয়ে চারটি কক্ষ ব্যবহারের কথা স্বীকার কার বলেন তার বাঁশায় কাজ চলছে তাই বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিকে জানিয়ে তিনি স্কুলের কক্ষ গুলি ব্যাবহার করছেন।

এব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফাইজুল ইসলাম বলেন বিদ্যালয়ে ধান শুকানো বা শিক্ষদের ব্যাক্তিগত কোন কাজ স্কুলে করতে পারবেনা । যদি কোন শিক্ষক এমন কিছু করে থাকে তবে সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মতামত দিন