মিরসরাইয়ে ১০৩ টাকায় পুলিশের চাকরি, থানায় সংবর্ধনা

মিরসরাই প্রতিনিধি:
জেসমিন আক্তার মুক্তা মিরসরাই উপজেলার মঘাদিয়া ইউনিয়নের শেখটোলা গ্রামের সিএনজি অটোরিক্সা চালক আলী আহাম্মদের মেয়ে। আলী আহাম্মদ সামান্য সিএনজি চালিয়ে সংসার চালায়। অনেক কষ্ট করে মেয়েকে এসএসসি পাশ করান। টাকা ছাড়া পুলিশের চাকরি হবে এটা কোনো দিন ভাবতে পারেননি। কিন্তু বাস্তবে এমনটায় হলো। ১০৩ টাকায় পুলিশে চাকরি পেল। সম্প্রতি প্রকাশ হওয়া ১০৩ টাকায় ফরম পূরণ করে মুক্তা সহ উপজেলার ৮১ জন পুলিশের কনস্টেবল পদে চাকরি পেয়েছে।
আর এদের নিয়েই বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুুপুর ১২ মিরসরাই থানায় এক সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। এসময় থানার সকল উপপরিদর্শক, সহ-উপপরিদর্শক অন্য কনেস্টেবলরা মিলে রজনিগন্ধা স্টিক দিয়ে তাদের বরণ করে নেয়। পরে তাদের মিষ্টি মুখ করানো হয়।

এসময় নিয়োগপ্রাপ্তরা তাদের অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, আমরা এভাবে বিনা পয়সায় চাকরি পেয়েছি এটা স্বপ্নের মত মনে হচ্ছে। সরকারকে ধন্যবাদ জানায় মেধার মাধ্যমে আমাদের পুলিশের চাকরি পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। এসময় প্রত্যেকে সততার সাথে তাদের দ্বায়িত্ব পালনের অঙ্গিকার করেন।

জানা গেছে, কনেস্টেবল পদের জন্য মিরসরাই থেকে ৮১ জন নিয়োগ পেয়েছেন। তারা মাত্র ৩ টাকা মূল্যের ১টি চালান ফরম ও ১০০ টাকা সরকার নির্ধারিত পরীক্ষার ফি বাবদ ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দিয়েছেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত ৮১ জন পুলিশ কনেস্টেবল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মিরসরাই থানার সকল কর্মকর্তা বৃন্দ।
এসময় মিরসরাই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিপুল দেবনাথের সঞ্চলনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন অফিসার ইনচার্জ জাহিদুল কবির।
চাকুরী পাওয়ার অনুভুতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন আরমান হোসেন, কামরুল হাসান, জেসমিন আক্তার মুক্তা প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জাহিদুল কবির নবাগতদের উদ্দ্যেশ করে বলেন, পুলিশের কাজ হচ্ছে নিষ্ঠার সাথে সৎ ভাবে মানব সেবা করা। একশ টাকা চাকুরী দেয়ার জন্য পুলিশ বাহিনীর পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করা হয়েছে এবং চাকুরী দেয়া হয়েছে। ফলে আপনারা যতদিন চাকুরী করবেন ততদিন সৎ ভাবে মানব সেবা করে যাবেন বলে আমি বিশ্বাস করি।

মতামত দিন