রোহিঙ্গা নারীসহ মানব পাচারকারী চক্রের ১৩ সদস্য আটক

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে বিশেষ অভিযানে দুইজন রোহিঙ্গাসহ মানব পাচারকারী চক্রের ১৩ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ এলাকায় র‍্যাব-১০ এর একটি বিশেষ অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

আটক রোহিঙ্গারা হলেন- মুশফেকা (১৯), নুর বেগম। এছাড়া আটক অন্যান্য ব্যক্তিরা হলেন- শান্তনা (১৩), বাবুল মিয়া (৪০) ও তার স্ত্রী কাকলী (৩৫), জাহাঙ্গীর আলম (৫২), মানিক (৪৫), রানা বিশ্বাস (৩৪), হুমায়ুন কবির (৪৩), আল-মামুন (৩৫), মাহফুজুর রহমান মাসুদ (৪০), ফারুক মিয়া (২৫), গৌরাঙ্গ সরকার (২৫)। তারা দেশের বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা।

এ তথ্য নিশ্চিত করে র‍্যাব-১০ এর উপ-অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ আশরাফুল হক বলেন, ভুয়া কাগজপত্র, ভিসা ও পাসপোর্ট তৈরি করে বাংলাদেশি নাগরিক পরিচয়ে বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিক রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন দেশে পাঠানোর চেষ্টাকারী একটি চক্রের ১১ সদস্যকে আটক করা হয়েছে। অভিযানে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি এই চক্রটি রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে তাদের জাল কাগজপত্র, ভিসা ও পাসপোর্ট তৈরি করে বাংলাদেশি নাগরিক পরিচয়ে দিয়ে মালয়েশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশে পাঠাত।

তিনি আরো বলেন, অভিযানে ২ জন রোহিঙ্গাকেও আটক করা হয়েছে। তারা এই চক্রের মাধ্যমে নকল পাসপোর্ট বানিয়ে বিদেশে যেতে চেয়েছিল। অভিযানে ২৫১টি পাসপোর্ট উদ্ধার করা হয়।

এ চক্রটি রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের রোহিঙ্গাসহ বাংলাদেশি নাগরিকদের বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে মালয়েশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে পাচার করে আসছিল।

মতামত দিন