বান্দরবান ও সাতক্ষীরায় আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

বান্দরবানে মংমং থোয়াই মারমা (৫৫) ও সাতক্ষীরায় নজরুল ইসলাম (৪৮) নামে আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। দুটি ঘটনাই আজ সোমবার দুপুরের। সাতক্ষীরা শহরতলীর কাসেমপুর স্টোন ব্রিকস এলাকা ও বান্দরবানের শামুকছড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বান্দরবানে আ’লীগ সভাপতিকে গুলি করে হত্যা:

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, বান্দরবান প্রতিনিধি জানান, বান্দরবানের তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মং মং মারমাকে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। আজ সোমবার সকালে সদর উপজেলার রুলাইং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রোয়াংছড়ি থানার ওসি শহীদুল ইসলাম। তিনি বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কে বা কারা খুন করেছে, কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড- এ বিষয়ে বিস্তারিত এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না।

মং মং মারমা দীর্ঘদিন ধরে রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

স্থানীয়রা জানান, সকালে সন্ত্রাসীরা রুলাইং এলাকায় তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়। গুরুতর অবস্থায় তাকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের ধারণা, জেএসএস এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

সাতক্ষীরা : নিহত নজরুল ইসলাম সদর উপজেলার কুচপুকুর গ্রামের মৃত নিছার আলীর ছেলে। তিনি ওই উপজেলার আগরদাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন।

পুলিশ জানায়, সকালে কদমতলা বাজার থেকে বাজার করে বাড়ি ফিরছিলেন নজরুল ইসলাম। তিনি সদর উপজেলাধীন কদমতলা-বৈকারী সড়কের কাসেমপুর স্টোন ব্রিকস এলাকায় পৌঁছালে সেখানে আগে থেকে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মোটরসাইকেল চালিয়ে এগিয়ে যান তিনি। একপর্যায়ে কাসেমপুর হাজামপাড়া এলাকায় পৌঁছালে মোটরসাইকেল থেকে রাস্তায় পড়ে যান নজরুল ইসলাম। সেখানেই মারা যান তিনি। ঘটনার পরপরই এলাকাবাসী সাতক্ষীরা-বৈকারি সড়ক অবরোধ করে।

খবর পেয়ে সাতক্ষীরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুৎমিশ ও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনাস্থলে পৌঁছান।

এর আগে নিহত নজরুল ইসলামের ভাই সিরাজুল ইসলামকে বোমা মেরে হত্যা করেছিল সন্ত্রাসীরা। বছর দুয়েক আগে তার ভাইপো যুবলীগ নেতা রাসেল কবীরকেও গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নেমেছে।’

মতামত দিন