র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

রাজধানীর হাজারীবাগে ও কক্সবাজারের টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অন্তত ৩ জন নিহত হয়েছে।

আজ সোমবার ও রোববার দিবাগত রাতে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

কক্সবাজার: কক্সবাজারের টেকনাফের মেরিনড্রাইভ সড়কে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অন্তত ২ জন নিহত হয়েছেন।

আজ সোমবার ভোরে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, আব্দুর রহমান (৪২) ও ওমর ফারুখ (৩১)।

র‌্যাব-২ এর ক্রাইম প্রিভেনশন কম্পানি-৩ এর কম্পানি কমান্ডার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে একটি মাদক পাচারকারী দল গোয়েন্দা নজরদারিতে ছিল। সে দলটির সম্ভাব্য মাদক পাচারের গোপন তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল রবিবার দিবাগত রাত ২টার সময় পাহাড়ছড়া পুলিশ ক্যাম্পের সামনে রাস্তার ওপর একটি চেক পোস্ট স্থাপন করা হয়। এ সময় গাড়ি তল্লাশির এক পর্যায়ে একটি দ্রুতগতির প্রাইভেট কার থামার নির্দেশ দিলে তারা নির্দেশ অমান্য করে সামনে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটিয়ে থেমে যায়। এ সময় র‌্যাব সেখানে গেলে তারা র‌্যাবের উদ্দেশে গুলি করে। র‌্যাব পাল্টা গুলি করে। এ সময় বেশ কিছুক্ষণ গুলিবিনিময় হয় তাদের সঙ্গে। এরপর গোলাগুলি থেমে গেলে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে দুজন গুরুতর আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে পুলিশের সহায়তায় প্রথমে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্ষে এবং সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। তাদের সঙ্গে থাকা ন্যাশনাল আইডির ভিত্তিতে পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়।’

ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে গাড়িসহ ৩০০ বোতল ফেনসিডিল, ৪০০০ পিস ইয়াবা, একটি বিদেশি পিস্তল ও চার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র থেকে আব্দুর রহমানের বাড়ি কক্সবাজারের টেকনাফ ও ফারুকের বাড়ি উখিয়ায় বলে জানা গেছে।

ঢাকা: রাজধানীতে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। তার নাম সুমন (২২)। নিহত যুবক সন্ত্রাসী ও অস্ত্র ব্যবসায়ী দলে দাবি করছে র‌্যাব।

গতকাল রবিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে হাজারীবাগ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

বন্দুকযুদ্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সিনিয়র সহকারি পরিচালক সিনিয়র এএসপি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

মতামত দিন