প্রশিক্ষনের মধ্য দিয়ে নিজেকে যোগ্য আইনজীবী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে-চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে চট্টগ্রাম আদালতে কর্মরত নবাগত আইনজীবীদের ০২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার ১ম দিনে সমিতির সভাপতি এ.এস.এম. বদরুল আনোয়ারের সভাপতিত্বে উদ্ধোধন করেন চট্টগ্রামের মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধা।

উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ওসমান গণি, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, সঞ্চালনায় ছিলেন সমিতির সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাশেদ ফারুকী।

উক্ত কর্মশালায় নবীনদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন ১ম আদালতের যুগ্ম জেলা দায়রা জজ মো. জসিম উদ্দিন, মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালেম মো. নোমান, সমিতির সাবেক সভাপতি মো. কফিল উদ্দিন চৌধুরী, শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান খাঁন আলমগীর এছাড়া আরোও উপস্থিত ছিলেন কার্যনির্বাহী পরিষদের সমিতির সিনিয়র সহসভাপতি মো. ইছহাক, সহসভাপতি মোহাম্মদ রফিকুল আলম, অর্থ সম্পাদক রফিকুল আলম, পাঠাগার সম্পাদক ভাস্কর রায় চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক জেবুন নাহার লীনা, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মোহাম্মদ হাসান মুরাদ, নির্বাহী সদস্য যথাক্রমে মো. আলী ইয়াছিন, মো. জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, পাইরিন আকতার, মো. আরিফ উদ্দীন চৌধুরী, মোহাম্মদ আফজাল হোসাইন, মো. নাছির উদ্দীন রুবেল, আবদুল জব্বার, মো. রিয়াদ উদ্দীনসহ সহ প্রায় ৮০০জন নবীন আইনজীবী।

স্বাগত বক্তব্য সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব খান বলেন- আজকের প্রশিক্ষনার্থী সকল নবীনদেরকে সিনিয়রদের সকল কর্মকান্ড অনুসরন ও অনুকরন করতে হবে। কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে নিজেকে একজন আইনজীবী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। আইনজীবীদের জীবনে কোন হতাশা নাই আছে অবারিত স্বপ্নীল সুন্দর জীবন। এ পেশায় কল্যানমূলক কর্মকান্ড করার অনেক সুযোগ রয়েছে। আমাদেরকে সেই পথ ধরেই বিচারপ্রার্থী জনগোষ্ঠীর সেবায় প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্য মহানগর দায়রা জজ মো. আকবর হোসেন মৃধা বলেন, নবীন আইনজীবীদের পদচারণায় আদালত অঙ্গন আজ মুখরিত” আইন পেশা স্বাধীন ও মহৎ পেশা। সভ্যতার ক্রম বিকাশে বিচার কার্য শুরু হওয়ার লগ্ন থেকে আইনজীবীরা ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও অধিকার হারা মানুষের অধিকারকে আইনীভাবে নিশ্চিত করার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছেন। আইনের শাসন ছাড়া একটি সমাজ সুন্দরভাবে চলতে পারে না। আইনজীবীগণ সমাজে অঘোষিত অভিভাবক। তারাই সমাজে যুগ যুগ ধরে প্রতিনিধিত্ব করে আসছেন। সমাজ পরিবর্তনে এবং সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আইনজীবীদের ভ’মিকা সর্বমহলে গ্রহণযোগ্য। তারাঁই ন্যায়বিচার ও আইনের শাসন বাস্তবায়নের হাল ধরবেন। কঠিন পরিশ্রমরে মধ্য দিয়ে আইনজীবী হিসেবে নিজেকে প্রারম্ভিক লগ্ন থেকে গড়ে তুলতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, আইনজীবীরা সমাজের সচেতন অংশের প্রতিনিধিত্ব করেন। আমরা গর্বের সাথে বলতে পারি চট্টগ্রামের প্রতিটা আইনজীবী একজন সচেতন নাগরিক। মানবিক মূল্যবোধ ও মহত্ত্বের দিক থেকেও আমরা শ্রেষ্ঠ।
বিশেষ অতিথিীর বক্তব্য চীফ মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ ওসমান গণি বলেন, বেঞ্চ এবং বারের সুসর্ম্পকের মধ্য দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়। এর মধ্য কোন একটিতে ব্যতয় ঘটলে বিচার প্রার্থী জনগোষ্ঠী ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত হয়। আমাদের সকলকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।
সভাপতির বক্তব্য এ.এস.এম বদরুল আনোয়ার বলেন, বিচার বিভাগ পৃথকীকরণ এবং স্বাধীন বিচার ব্যবস্থা বাস্তবায়নে আইনজীবীরা অগ্রনী ভূমিকা রেখেছে। আজকের নবাগতরা আমাদের পূর্বসূরীদের বীরত্ব ও ঐতিহ্য সংরক্ষনের ধারক ও বাহক হবেন। এ প্রত্যাশা করে আপনাদের দিকে আমরা তাকিয়ে আছি।

উল্লেখ্য যে, প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মুনসী আব্দুল মজিদ।

মতামত দিন