ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বিচারক ও আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে-চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মুনসী আব্দুল মজিদ

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে চট্টগ্রাম আদালতে কর্মরত নবাগত আইনজীবীদের ০২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী দিনে সমিতির সভাপতি এ.এস.এম. বদরুল আনোয়ারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মুনসী আব্দুল মজিদ, স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগমকামরুন নাহার রুমী, সঞ্চালনায় ছিলেন সমিতির সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রাশেদ ফারুকী।

উক্ত কর্মশালায় নবীনদের অর্থঋণ ও ব্যাংকিং বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন সিনিয়র আইনজীবী এস.এম. শওকত হোসেন, বিচারকার্যে নবীন আইনজীবীদের ভূমিকা ও করণীয় বিষয় নিয়ে সমিতির সাবেক সভাপতি জনাব আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, শ্রম আইন ও বিচার ব্যবস্থা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সিনিয়র আইনজীবী মো. মহসিন আহমেদ চৌধুরী, সাইবার ক্রাইম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রফেসর এড. মো. মহিউদ্দিন খালেদ মুকুল, ফৌজদারী কার্যক্রম এবং সাক্ষ্য আইন বিষয় নিয়ে সমিতির সাবেক সভাপতি রেজাউল করিম চৌধুরী, সুনির্দিষ্ট প্রতিকার আইন বিষয় নিয়ে সমিতির সাবেক সভাপতি রতন কুমার রায়, রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ত্ব আইন বিষয় নিয়ে সমিতির সাবেক সভাপতি এ.কে.এম.সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ প্রশিক্ষণ প্রদান করেন।

এছাড়া কর্মশালায় আরোও উপস্থিত ছিলেন কার্যনির্বাহী পরিষদের সহসভাপতি মোহাম্মদ রফিকুল আলম, অর্থ সম্পাদক রফিকুল আলম, পাঠাগার সম্পাদক ভাস্কর রায় চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক জেবুন নাহার লীনা, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মোহাম্মদ হাসান মুরাদ, নির্বাহী সদস্য যথাক্রমে মো. আলী ইয়াছিন, মো. জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, পাইরিন আকতার, মো. আরিফ উদ্দীন চৌধুরী, মোহাম্মদ আফজাল হোসাইন, মো. নাছির উদ্দীন রুবেল, আবদুল জব্বার, মো. রিয়াদ উদ্দীনসহ সহ প্রায় ৯০০জন নবীন আইনজীবী।

স্বাগত বক্তব্যে সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব খান বলেন- তরুণ আইনজীবীরা আইনাঙ্গনে বিচরণের মধ্য দিয়ে কোর্ট ও গাউনের মর্যাদা রাখতে হবে। যে কোন পরিস্থিতিতে আমাদেরকে যোগ্য সৎ এবং আর্দশবান আইনজীবী হতে হবে। আজকে যারা নবীন আইনজীবী তারাই একদিন আইনপেশায় বটবৃক্ষ হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্য চট্টগ্রামের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ মুনসী আব্দুল মজিদ বলেন, একটি দেশের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ স্থান হল আইন অঙ্গন। আইনের শাসন ও ন্যায় বিচারে যে দেশ যতটুকু সমুন্নত থাকবে সে দেশ ততটা সভ্য দেশ হিসেবে বিবেচিত হবে। আইনপেশায় আগত নবীনদের প্রথমে খুব কষ্টের সম্মুখীন হতে হবে। সঠিক প্রশিক্ষনের মধ্য দিয়ে নিজেকে যোগ্য আইনজীবী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারলেই ভবিষ্যৎ জীবন সফল ও সার্থক হয় । তিনি আরোও বলেন, দেশে বর্তমানে বিচার ব্যবস্থা বিচারক ও আইনজীবীদের ঐকান্তিক প্রচেস্টায় উত্তরোত্তর সমৃদ্ধির দিকে এগোচ্ছে। নবীনদের পথ চারণায় নতুন মাত্রার যোগ হবে। আমরা আশা করব ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বেঞ্চ এবং বার সম্মিলিতভাবে কাজ করবে।
সভাপতির বক্তব্য এ.এস.এম বদরুল আনোয়ার বলেন, আইনের শাসনকে সমুন্নত রাখতে ঘুষ, দুর্নীতিমুক্ত বিচারাঙ্গন প্রতিষ্ঠায় অতীতের ন্যায় আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আমরা আশা করি দেশের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য যতটুকু সম্ভব আমরা আইনজীবী হিসেবে কাজ করব। দেশের বর্তমান বিচার ব্যবস্থা স্বাধীন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে কাজ করার জন্য বিচারক ও আইনজীবীরা অনন্য সাধারণ ভ’মিকা রাখছেন। নবীন মেধাবীদের সংযোজনের মধ্য দিয়ে এ বিষয়টি আরো ত্বরান্বিত হবে।
কর্মশালার সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি থেকে নবীন আইনজীবীগণ সমিতি কর্তৃক প্রদত্ত সনদ গ্রহণ করেন।

মতামত দিন