হ্যাকিংয়ের অভিযোগে গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের এডমিন তাসনুভা কারাগারে

ফেসবুক পেইজ হ্যাকিংসহ নানান অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে চট্টগ্রামের বহুল আলোচিত ফেসবুক গ্রুপ গার্লস প্রায়োরিটি’র অ্যাডমিন তাসনুভা আনোয়ারকে জেলে পাঠিয়েছে চট্টগ্রামের একটি আদালত।বুধবার (আজ ২১ আগস্ট) চট্টগ্রাম মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালেহ মোহাম্মদ নোমানের আদালত তাসনুভাকে কারাগার পাঠানোর আদেশ দেন।

তাসনুভার বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পেইজ, গ্রুপ ও ব্যক্তিগত ফেসবুক হ্যাক করার অনেক অভিযোগ রয়েছে।

সিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট সূত্রে জানা যায়, ২৬ মে পাঁচলাইশ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তাসনুভা আনোয়ার, আমেনা চৈতী, সালমান মোহাম্মদ ওয়াহিদসহ কয়েক জনকে আসামি করে মামলা করেন ইসতিয়াক হাসান।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, সালমান ও তার গ্রুপের কিছু সদস্য ইসতিয়াকের স্ত্রী জুহি চৌধুরীর নামে বিভিন্ন ফেক আইডি খুলে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য প্রচার করছে। তারা ১১ মে জুহি চৌধুরীর ফেসবুক আইডির বিপরীতে নকল ডেথ সার্টিফিকেট বানিয়ে তিনি মারা গেছেন বলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে রিপোর্ট করেছে। এ কারণে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জুহি চৌধুরীর কাছ থেকে ফেসবুক এক্সেস নিয়ে নেয়।

সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুজ্জামান জানান, উচ্চ আদালত থেকে নেয়া জামিনের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে নিন্ম আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করেছিলেন তাসনুভা। আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে অভিযুক্ত তাসনুভাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলায় বাদী পক্ষের আইনজীবী জানান, ইসতিয়াক হাসান গত ২৬ মে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ১৭/১৮/২৪/২৫/৩৪/৩৫ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-২৭(৫)১৯ । এই মামলায় গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের স্বত্তাধিকারি তাসনুভা আনোয়ার, আমেনা চৈতী, সালমান মোহাম্মদ ওয়াহিদ, নাদিয়া আকতার রুমিকে আসামী করা হয়। এর মধ্যে হ্যাকার সালমান ওয়াহিদ গ্রেফতার হয়ে আগে থেকেই জেলে আছে।আসামী আমেনা চৈতি পলাতক রয়েছে।

মতামত দিন