মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি পদ স্থগিত

মিরসরাই প্রতিনিধি: মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি পদ ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বিদ্যালয়ের সভাপতি মোহাম্মদ এনামুল হকের সভাপতি পদে থাকা কেন অবৈধ ও বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।
গত রোববার (১৮আগষ্ট) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিল এর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি পদ ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বিদ্যালয়ের সভাপতি মোহাম্মদ এনামুল হকের সভাপতি পদে থাকা কেন অবৈধ ও বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।
গত রোববার (১৮আগষ্ট) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিল এর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারী মো. আলাউদ্দিনের পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট শঙ্কর প্রসাদ দে।
আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে সচিব শিক্ষা মন্ত্রণালয়, পরিচালক মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগ, চেয়ারম্যান মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড চট্টগ্রাম, বিদ্যালয় পরিদর্শক মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড চট্টগ্রাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিরসরাই, প্রধান শিক্ষক মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও পরিচালনা পরিষদ সভাপতি মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সহ সংশ্লিষ্টদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
আইনজীবী এডভোকেট শঙ্কর প্রসাদ দে বলেন, প্রবিধানমালা অনুযায়ী কোন শিক্ষক ও শিক্ষক শ্রেণীর কেউ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মনোনীত হতে পারেন না। এ কারনে অন্য একটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনামুল হকের মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সভাপতি পদে থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আদালত সভাপতি পদ ছয় মাসের জন্য স্থগিতের পাশাপাশি রুল জারি করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ২১ এপ্রিল মিরসরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মনোনীত হন একই উপজেলার বারইয়ারহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনামুল হক। অথচ প্রবিধানমালার ২০০৯-এর ৭(২)-এ স্পষ্টত বলা আছে, ‘কোনো শিক কিংবা শিক্ষক শ্রেণীর সদস্য গভর্ণিং বডির সভাপতি পদে মনোনীত হইবেন না’।
বিষয়টি মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের দৃষ্টিগোচর হলে তিনি সভাপতি হিসেবে এনামুল হক কে অনুমোদন না দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড চেয়ারম্যান বরাবরে ৯জুন চিঠি পাঠান (স্মারক নং: ০০.৫০৪.০০৪.০৬.১০.০৬৬.১৯-৬০২)। পরবর্তীতে ১৭জুন তারিখে আবারো সভাপতি পদে নতুন করে নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহনের অনুরোধ জানিয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড চট্টগ্রামের বিদ্যালয় পরিদর্শক বরাবরে চিঠি (স্মারক নং: ০০.৫০৪.০০৪.০৬.১০.০৬৬.১৯-৬৫৮) দিয়েছিলেন ইউএনও রুহুল আমিন।
এরপরও ওই শিক্ষককে আবারো ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় বিস্ময় ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিভাবক ও স্থানীয় শিক্ষানুরাগীরা।

মতামত দিন