লামায় ইউপি চেয়ারম্যান ও শিক্ষক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী ওয়ারেন্ট

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি:

বান্দরবানের লামায় সদর ইউপি চেয়ারম্যান সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী ওয়ারেন্ট জারী করেছে লামা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। প্রতারণা ও বিশ্বাসভঙ্গের অপরাধে ধারা: ৪০৬/৪২০/৪৬৫/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/৫০৬ মূলে সি/আর মামলা- ২৪৬/১৯ দায়ের করে লামা বাজারের ব্যবসায়ী মৃত রতন ঘোষ এর ছেলে রোবেল ঘোষ।
মামলার আসামীরা হল, লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর চেয়ারম্যান অচ্যু কুমার দাশ, সাধারণ সম্পাদক কানু কান্তি দাশ, ক্যাশিয়ার মাইকেল আইচ, সাবেক চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন (লামা সদর ইউপি চেয়ারম্যান) ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুকুমার দেওয়ানজী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মামলার বাদী রোবেল ঘোষ তার পিতা মৃত রতন ঘোষ এর মৃত্যুর পরে লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ হতে ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ঋণ হিসেবে গ্রহণ করেন। উক্ত টাকার বিপরীতে তিনি অলিখিত ২টি চেক ও ৩শত টাকা মূল্যের অলিখিত স্ট্যাম্প প্রদান করেন। সে চেক ও স্ট্যাম্প আমার অবর্তমানে সমিতির কর্তৃপক্ষ (মামলার আসামীরা) লিখে আমার কাছে ৯ লক্ষ ৪৩ হাজার ৮২৯ টাকা দাবী করেন। এছাড়া অভিযোগকারীর মা কৃষ্ণা ঘোষ ঋণ না নেয়া সত্ত্বেও তার কাছ থেকে ৬৫ হাজার ৩৪৪ টাকা দাবী করে লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেছে লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ। যা প্রতারণা ও বিশ্বাসভঙ্গের শামিল।
এদিকে বাদী কর্তৃক দায়েরকৃত উদ্দেশ্যপ্রনোদিত মামলা থেকে চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবী জানিয়েছেন বিভিন্ন মহল। বৃহস্পতিবার তাৎক্ষনিক বিবৃতি জানিয়েছেন লামা উপজেলা আওয়ামীলীগ, অংগ ও সহযোগী সংগঠন, ইউনিয়ন পরিষদের সকল নারী ও পুরুষ মেম্বার সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবর্গ। তারা বলেন, চলমান লেনদেন নিয়ে লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর বিগত কমিটির চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদকের নামে মামলা করার বিষয়টি দুঃখজনক ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত।
লামা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর চেয়ারম্যান অচ্যু কুমার দাশ বলেন, হিসাবের বিপরীতে সকল সঠিক তথ্য প্রমাণ আমাদের কাছে আছে। যথাসময়ে তা আদালতে প্রদর্শন করা হবে।
মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবি মোহাম্মদ শওকত ওসমান আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী ওয়ারেন্ট জারী বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা আইনের কাছে ন্যায় বিচার পাবো বলে আশা করি।

মতামত দিন