সততা ও দেশপ্রেমের সঙ্গে কাজ করুন-বিজিবিকে প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা: সততা, দেশপ্রেম ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করতে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবিকে পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিজিবির প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সীমান্তরক্ষাসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে এই বাহিনীর অবদান অনস্বীকার্য।

আজ বুধবার বর্ডার গার্ড অব বাংলাদেশ (বিজিবি) দিবস উপলক্ষে রাজধানীর পিলখানায় ওই বাহিনীর সদর দফতরে বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে সকাল ১০টার দিকে বিজিবির কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় বিজিবিতে বীরত্বপূর্ণ ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বাহিনীর কয়েকজন চৌকস সদস্যকে পদক দেওয়া হয়।

বিজিবির অবদানের কথা স্বীকার করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন দুর্যোগের সময় তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। জনগণের জানমাল রক্ষায় যারা মানুষ হত্যা করে, রেললাইন উপড়ে ফেলে তাদের দমনে এই বাহিনী সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য যে, দেশের সাধারণ মানুষ যখন একটু ভালো থাকার চেষ্টা করে তখনই দেশের স্বাধীনতার বিরোধীতাকারীরা মানুষের ওপর নির্মমভাবে অত্যাচার চালিয়েছে। তারা আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে, রেলললাইন উপড়িয়ে জনগণের জানমাল ক্ষতি করা চেষ্টা করেছে। তবে দেশের মানুষকে এই অত্যাচার থেকে রক্ষায় বিজিবি সততার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু সীমান্ত আইন করে গিয়েছিলেন। ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর আমরা সেটা বাস্তবায়ন করেছি। বিজিবির সহায়তায় ভারতের সঙ্গে ছিটমহল বিনিময় হয়েছে, যা পৃথিবীর মধ্যে বিরল। এত উৎসবমুখর পরিবেশে বিশ্বের আর কোথাও এ ধরণের বিনিময় হয়নি বলেও দাবি করেন তিনি।

এদিকে মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনা বৃদ্ধিরপর সেনাবাহিনী সেখানে সুন্দরভাবে দায়িত্বপালন করছে জানিয়ে তিনি বলেন, সীমান্তে উত্তেজনা দেখা দিলে, পার্বত্য অঞ্চলে উত্তেজনা দেখা দিলে সেনাবাহিনী নিজেদের জানমালের চিন্তা না করে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

মতামত দিন