বান্দরবানে ১৭ তম বোমাং রানী ড মাওয়াং প্রু এর সৎকার সম্পন্ন

রিমন পালিত: বান্দরবান প্রতিনিধি:
বান্দরবানে ১৭ তম বোমাং রাজা উচপ্রু চৌধুরী এর সহধর্মিনী রানী ড মাওয়াং প্রু কে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা দিয়ে শেষ বিদায় জানালো রাজপরিবার, হেডম্যান ও প্রজারা। তবে করোনা প্রার্দুভাব এরাতে অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া সময়ে জনসমাগম ও সর্বসাধারণের আগমন নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে বলে সাধারণ সম্পাদক টি মং প্রু স্বাক্ষরিত স্মারক পত্রে উল্লেখ করা হয়। মহামারি সময়ে সীমাবদ্ধার মধ্যে বোমাং সার্কেলে রানীর বিদায় জানালো রাজ পরিবার।

আজ ১৮ মে সোমবার দুপুরে রাজপ্রাসাদ থেকে রানীর মরদেহ নামীয়ে বান্দরবান পুরাতন রাজার মাঠে রাজ প্রথা ও নীতি অনুসারে সন্মান জানানোর পর মারমাদের কেন্দ্রীয় শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর রাণীর মরদেহটি ধর্মীয় রীতিনিতি সম্পন্ন শেষে অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।

এই সময় পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা,, পৌরমেয়র ইসলাম বেবি,, সিভিল সার্জন ডাক্তার অংসুই প্রু মারমা, সহ বিভিন্ন উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

রাণী মাওয়া প্রু ১৯৪৬ সালের ১ মে পার্বত্য চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটি জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। রাণীর পিতা ক্যথোয়াইউ ও মাতা মাচিং। ১৯৬৫ সালে রাঙ্গামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস এস সি পাশ করেন। ১৯৬৮ সালে বান্দরবান ডনবস্কো উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা পেশায় যোগ দান করেন। ২০১৩ সালে ১৭তম রাজা বোমাং সার্কেল চীফ হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন উচপ্রু চৌধুরী সেই সাথে রাণী হন মাওয়াং প্রু।

উল্লেখ্য, গত ১০ মে রবিবার রাত পৌনে ১২ টার সময় নিজ রাজপ্রাসাদে মুতু বরণ করেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি বর্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুর কালে রাণীর বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি এক ছেলে ও এক মেয়েসহ আত্ময়ী সজন রেখে গেছেন।

মতামত দিন