করোনা পরিস্থিতিতে চট্টগ্রামে হচ্ছে আরো ৬৫০ শয্যার চিকিৎসা কেন্দ্র

সুমন গোস্বামী:

চট্রগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাসির উদ্দিন বলেছেন, সংক্রমণ যেহেতু পর্যায়ক্রমে বৃদ্ধি পাচ্ছে সেহেতু বিষয়টি বিবেচনা করে আমরা হাসপাতাল বৃদ্ধির কথা ভাবছি। চট্রগ্রাম নগরীতে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের তুলনায় সরকারী ও বেসরকারী চিকিৎসা কেন্দ্র অপ্রতুল। তাই করোনা সংক্রমন বিস্তার প্রতিরোধে আরো চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপন জরুরী হয়ে পড়েছে। এই বাস্তবতার প্রেক্ষিতে চট্রগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের তদারকীতে আরো বেশি চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ বাস্তবায়ন শুরু করেছে।

তিনি আজ সকালে চট্রগ্রাম রেলওয়ে হাসাপাতাল সংলংগ্ন বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ১৫০ এবং আগ্রাবাদস্থ সিটি কনভেনশন হলে ৫০০ শয্যা বিশিস্ট করোনা বিস্তার প্রতিরোধ মুলক চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপনের প্রস্তুতি কার্যক্রম পরির্দশন কালে এ কথা বলেন। তিনি আরো ও বলেন, চট্রগ্রাম নগরীতে করোনা পরিস্তিতি ভায়াবহ আকার ধারনের আগেই সমন্বিত উদ্দেগে সুদৃঢ প্রতিরোধ কল্পে এখন যা আছে তার চেয়ে আরো বেশী চিকিৎসা কেন্দ্র স্হাপন করতে পারলে অবশ্যই পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রনের মধ্যে থাকবে। এখনো পর্যন্ত কোন কার্যকর ভলকসীন ও প্রতিষেধক আবিস্কত না হওয়াই সনাক্ত করোনা আক্রান্তদের কোয়ারেনটাইন,আইসোলেশনও লাইফ সাপোর্টিং এর জন্য স্হাপিত চিকিৎসা কেন্দ্রগুলো পরিস্হিতি নিয়ন্ত্রের মূল ভরসা এবং এ ধরনের চিকিৎসা কেন্দ্রবৃদ্ধি পাবে ততই পরিস্হিতির উন্নতি ঘটবে। তাই এই লক্ষ্য পূরণে সমন্বিত উদ্দোগের কোন বিকল্প নেই।

এ সময় উপস্হিত ছিলেন চট্রগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ চট্রগ্রাম এর সিভিল সার্জান ডা: সেখ ফজলে রাব্বি , বিএম এ চট্রগ্রামের সভাপতি ড: মুজিবুল হক ও মেয়র মহোদয়ের একান্ত সচিব মো: আবুল হাশেম।

মতামত দিন