চাটার্ড ফ্লাইটে সস্ত্রীক দেশ ছাড়লেন মোরশেদ খান

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

একটি বিমান ভাড়া করে স্ত্রী নাছরিন খানকে নিয়ে দেশ ছেড়েছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী, সিটিসেল ও এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খান। তারা যুক্তরাজ্যে গেছেন বলে জানা গেছে । তবে ৩৮৩ কোটি টাকা অর্থ আত্মসাতের মামলায় মোরশেদ খানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি থাকলেও তিনি আদালতের অনুমতিক্রমেই দেশ ছেড়েছেন বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বিএনপি আমলের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোর্শেদ খান চট্টগ্রাম ৮ আসন থেকে তিনবার এমপি নির্বািচিত হয়েছিলেন। গত সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করেছিলেন চট্টগ্রামের চান্দগাঁও এলাকার এ শিল্পপতি।

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এইচ এম তৌহিদ উল আহসান জানান, গতকাল (বৃহস্পতিবার) একটি বিদেশি এয়ারলাইন্স কোম্পানির চাটার্ড ফ্লাইটে (ভাড়া করা বিমান) করে মোরশেদ খানের যুক্তরাজ্য যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ফ্লাইটটি গতকাল না গিয়ে আজ (শুক্রবার) দুপুর ১টা ২৫ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান ত্যাগ করেছে। ফ্লাইটে যাত্রী ছিলেন কেবল দুই জন মোরশেদ খান ও তার স্ত্রী নাসরিন খান।

মোরশেদ খান ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। এর আগে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে ১৯৯২ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত পূর্ণ মন্ত্রীর পদমর্যাদায় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ছিলেন তিনি। তিনটি জাতীয় নির্বাচনে নির্বাচিত সংসদ সদস্য তিনি। সবশেষ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন মোরশেদ খান। গত বছরের ৫ নভেম্বর তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে দলের সব ধরনের পদ-পদবী থেকে সরে দাঁড়ান।

দেশের প্রথম মোবাইল অপারেটর সিটিসেল ছাড়াও প্যাসিফিক মোটরস, আরব বাংলাদেশ ব্যাংকের মতো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মোরশেদ খান ও তার পরিবারের বিনিয়োগ আছে। তবে মোরশেদ খান ও তার ছেলের নামে বিদেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ আছে। সে অভিযোগে দুদকের দায়ের করা মামলার কার্যক্রম চলমান। তাছাড়া তার ও তার ছেলের নামে হংকংয়ের স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের হিসাব জব্দ রাখতে বিচারিক আদালতের আদেশ বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট।

গত বছরের ১০ জুন সাবেক এম মোরশেদ খানের বিদেশ যাওয়া ঠেকাতে বিমানবন্দরের বহির্গমন কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তারও আগে ২০১৭ সালের ২৮ জুন মোরশেদ খান ও তার স্ত্রী নাসরিন খানকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফেরত পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু এরপরও করোনাকালে দেশত্যাগে করেছেন বিএনপির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খান।

মতামত দিন