রাঙ্গুনিয়ায় ৮ বছরের ছাত্রকে বলৎকার: শিক্ষক আটক

এম. মতিন রহমান ||

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় ৮ বছরের এক মাদ্রাসার ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনা ঘটেছে। বলৎকারের অভিযোগে মো: জুয়েল (২৭) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী।

সোমবার (১ জুন) উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়েনের হাজারী খীল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মো. জুয়েল পেশায় একজন শিক্ষক। সে উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের হাজারী খীল আইল্লের বাপের বাড়ি এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে। শিশুটি উপজেলার রাখাল গাছা ভাটো পাড়া গ্রামের বাসিন্দা। সে উত্তর দমদমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ম শ্রেণির ছাত্র। প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, আজ সোমবার দুপুরে স্থানীয় একটি পাঠাগারের শিক্ষক জুয়েল ৮ বছর বয়সী শিশুটিকে রাস্তায় খেলারত অবস্থা থেকে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করে। একপর্যায়ে শিশুটির চিৎকারে পাশের লোকজন এগিয়ে এসে ঐ অবস্থায় জুয়েলকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এবং শিশুটিকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে এলাকাবাসী জুয়েলকে হাতেনাতে ধরার পর প্রথমে বলৎকারের কথা অস্বীকার করলেও পরে জেরার মুখে স্বীকার করে। এর আগেও সে বেশ কয়েকবার এই কাজ করেছে বলে স্বীকার করেছে। স্থানীয়রা তাকে গণপিঠুনি দিয়ে জুতার মালা পড়িয়ে এলাকায় এলাকায় ঘুরিয়ে গাছের সাথে বেধে রাখে। পরে ইউপি সদস্য আলমগীর হাসান সিকদারের সহযোগিতায় রাঙ্গুনিয়া থানায় তাকে হস্তান্তর করা হয়।

শিশুটির বাবা বলেন, ‘আমার ছেলেকে হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। এখন সে চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। আমি এই ঘটনার বিচার চাই। সুষ্ঠু বিচার না পেলে আমি আইনগত ব্যবস্থা নেবো।’

স্থানীয় ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন সিকদার বলেন, ‘বলাৎকারের সময় স্থানীয়রা হাতেনাতে জুয়েল নামের এই যুবককে ধরে ফেলে। তাকে বেধে রেখে আমাকে খবর দেয় তারা। আমি দ্রুত ছুটে যাই ঘটনাস্থলে। গিয়ে দেখি এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসিকে ফোন করলে পুলিশ এসে তাকে থানা নিয়ে যায়। এ ধরনের নোংরা অপরাধের কঠিন শাস্তি হওয়া দরকার।’

রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ৮ বছরের এক শিশুকে বলৎকারের সময় এলাকাবাসী জুয়েল নামের এক যুবককে হাতেনাতে ধরে থানায় খবর দিলে আমরা তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। শিশু বলৎকারের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

মতামত দিন