বেসরকারী হাসপাতালে করোনা রোগীদের জরুরীভাবে চিকিৎসা দেয়ার দাবি চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বেসরকারী বিভিন্ন হাসপাতালে করোনা রোগীদের জরুররীভাবে সেবা প্রদানের দাবী জানিয়ে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সৈয়দ মোক্তার আহমদ ও সাধারন সম্পাদক এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন সংবাদপত্রে এক যুক্ত বিবৃতি প্রদান করেন।
উক্ত বিবৃতিতে আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে চট্টগ্রাম করোনা রোগের হটস্পট। সে তুলনায় করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবাদানের জন্য হাসপাতাল আছে মাত্র গুটি কয়েক। এ সমস্ত হাসপাতালের কিছু চিকিৎসক, নার্স, ষ্টাফও বর্তমানে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তারপরও কিছু চিকিৎসক, নার্স করোনা রোগীদের আপ্রাণ চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। নেতৃবৃন্দ তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
ইতিমধ্যে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির ০৪ জন বিজ্ঞ সদস্য, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনেক সদস্যসহ প্রায় ৭৬জন চট্টগ্রামবাসী করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। অনেকে বর্তমানে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুপথ যাত্রী। এমতাবস্থায় সরকার নির্দেশ প্রদান করেছেন সকল বেসরকারী হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসাসেবা প্রদানের জন্য। কিন্তু অত্যন্ত দু:খের বিষয় জাতির এহেন দুর্যোগপূর্ণ মুহূূর্তে কিছু বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন না। এছাড়া অন্য রোগে আক্রান্ত যাদের করোনা হয়নি তারাও হাসপাতালে ভর্তি হতে গিয়ে চরম হয়রানীর শিকার হচ্ছেন। অনেক বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের ভর্তি করাচ্ছে না। বর্তমান পরিস্থিতিতে অনেক ডাক্তার ক্লিনিক ও চেম্বার বন্ধ রেখেছেন যা আমাদের জন্য হতাশার বিষয়। উক্ত বিষয়ে বর্তমান বার কাউন্সিল সদস্য ও সাবেক বার কাউন্সিল সদস্যসহ আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ এ সমস্ত বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের এহেন অমানবিক আচরনের তীব্র নিন্দা জানান।
নেতৃবৃন্দ বলেন, সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নিমূল আইন,২০১৮} অনুসারে যে সমস্ত বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সরকারী নির্দেশ অমান্য করে করোনা রোগীদের সেবা দিচ্ছেন না তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উক্ত আইনে বর্ণিত আছে। তদুপরি দি মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল এ্যাক্ট ১৯৮০ এ একজন রেজিষ্ট্রার্ড চিকিৎসকের দায়িত্ব ও কর্তব্য লিপিবদ্ধ আছে। যে সমস্ত বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সরকার হতে অনুমোদন নিয়ে হাসপাতাল ব্যবসা শুরু করেন তাতেও রোগীদের সেবা দেয়ার বাধ্যবাধকতা আছে। উপরোক্ত আইন বলে এহেন অবস্থায় দেশের মানুষ যাতে এ সমস্ত বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা পায় সে বিষয়ে চিকিৎসকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে জরুরী ভিত্তিতে করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য নেতৃবৃন্দ জোর দাবী জানান।

মতামত দিন