কাপ্তাইয়ে আড়াই’মাস পর ভবঘুরেদের খাবার দেওয়া সমাপ্ত করলো সেকান্দার

নূর হোসেন মামুন ||

রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাইতে লকডাউন শিথিল হওয়ায় আড়াই মাস পর ভবঘুরেদের খাবার বিতরণ কার্যক্রম সমাপ্ত করলো স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী মো. সেকান্দার হোসেন। শুক্রবার (৫ই জুন) ৩০’জন মানসিক ভারসাম্যহীনদের খাবার দেওয়ার মাধ্যমে এ কার্যক্রম সমাপ্ত করেন তিনি।

জানা যায়, করোনা প্রভাবে খাদ্যের অভাবে নিস্তেজ হওয়া মানসিক ভারসাম্যহীনদের দীর্ঘ আড়াই মাস যাবত নিয়ম করে দু’বেলা খাবার বিতরণ করে পাশে দাঁড়ায় তিনি। নিজে রান্না করে মোটরসাইকেল যোগে ছিন্নমূল এসব মানুষকে খুঁজে খাবার দিতেন তিনি। প্রতিদিনই খাবারের তালিকায় থাকতো মাছ, মাংস, ডিম সহ বিভিন্ন মূখরোচক রশদ।

এদিকে, ভবঘুরের প্রতি তার এমন ভালোবাসা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচিত হয়েছে দীর্ঘদিন। অবশেষে লকডাউন শিথিল হওয়ার ঘোষণায় খুলেছে দোকানপাট। তাই মানসিক ভারসাম্যহীনদের খাবার বিতরণ কার্যক্রম সমাপ্ত করার কথা জানান স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী মো. সেকান্দার হোসেন। তবে বিভিন্ন সংস্থা, কিংবা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্ছৃষ্ট খাবার না ফেলে ভবঘুরেদের জন্য প্রদান করলে তা বিতরণে সহযোগিতার কথা জানান তিনি।

স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. সেকান্দার হোসেন আরও জানান, দীর্ঘ আড়াই মাস আমি নিজ উদ্যোগেই কাপ্তাইয়ের ৩০জন মানসিক ভারসাম্যহীনদের খাবার বিতরণ করি। এক্ষেত্রে কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহম্মেদ রাসেল আমাকে যথেষ্ট মনবল দিয়েছেন। স্থানীয় সকলেই জানিয়েছেন ভালোবাসা।

লকডাউন শিথিল হলেও ভবঘুরেদের খাবারে কষ্ট না হতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে কাপ্তাইয়ের স্থানীয় কাঠ ব্যবসায়ী মো. সেকান্দার হোসেন আরও বলেন, আপনার নিজ উদ্যোগে নিকটস্থ এসব মানসিক ভারসাম্যহীদের অন্তত দু’মুঠো খাবার প্রদান করলে হয়তো বেঁচে যাবে তাদের জীবন।

মতামত দিন