লোহাগাড়া থানায় একই দিনে ৫ পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত

মো. এরশাদ অালম, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম):

সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশও যখন করোনার দাবানলে দগ্ধ ঠিক তখনই দেশের সাধারণ মানুষকে ঘরমুখো করে করোনার ছোঁবল থেকে রক্ষা করতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা।

কিন্তু মানবিক দৃষ্টি থেকে তাকালে দেখা যায় তারাও তো মানুষ, আমাদের মত তাদেরও তো বউ বাচ্চা পরিবার পরিজন রয়েছে। করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু থেকেই দেশের সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে গিয়ে ইতিমধ্যে অনেক পুলিশ সদস্যরা করোনায় অাক্রান্ত ও মৃত্যু বরণ করেছেন।

তারই ধারাবাহিতায় গতকাল ১১ই জুন (বৃহস্পতিবার) চট্টগ্রাম লোহাগাড়া থানায় একই দিনে ৫ পুলিশ সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ হানিফ।
তিনি বলেন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পিসিঅার ল্যাবে করোনার নমুনা পরীক্ষায় লোহাগাড়া থানায় নতুন করে ৫ পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়। ১ জনের নমুনায় দ্বিতীয় বার করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। ১ জন সুস্থ হয়ে কাজে যোগ দিয়েছেন। এ পর্যন্ত লোহাগাড়া থানায় মোট পুলিশ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন ৬ জন।

আক্রান্তরা হলেন- এস আই পার্থ সারথি, এস আই, নুর নবী, কনেষ্টেবল মো. বাছির উদ্দিন ও বেতার কনেষ্টেবল মো. জুনাইদ সহ ৪ জন পুলিশ সদস্যের করোনার নমুনা টেষ্টে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। কনেষ্টেবল কালো বরণ চাকমার এ নিয়ে দ্বিতীয় বার পজেটিভ। উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) দুলাল বাডৈ সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছেন।

এ পর্যন্ত চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় করোনায় আক্রান্ত ৭৫ জন। সুস্থ হয়েছেন ৪০ জন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ৪ জন এবং উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে ৪ জন।

নতুন করে আক্রান্ত পুলিশ সদস্যরা নিজ নিজ হোম আইসোলেশনে রয়েছে। কনেষ্টেবল কালো বরণ চাকমা লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন। তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ হয়ে উঠেছেন বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে।

মতামত দিন