কাপ্তাইয়ের নতুন ইউএনও মুনতাসির জাহান : অশ্রুজলে বিদায় জানালো রামগঞ্জবাসী

নূর হোসেন মামুন ||

রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান বদলি হয়ে নতুন কর্মস্থল রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা ও কুমিল্লার হোমনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাপ্তি চাকমা বদলি হয়ে রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে যোগদান করবেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মো. মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানা যায়।

জানা যায়, রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহান ২০১৯ সালের ২৩ই জুলাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে রামগঞ্জ উপজেলায় যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে রামগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডসহ সামাজিক কাজকর্মে এবং প্রশাসনিক কার্যক্রমে ব্যাপক সূনামের অধিকারী হন।

তার অক্লান্ত পরিশ্রম ও মেধায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ-ছেলেধরা-গুজব ও করোনা ভাইরাসের মহামারিতে নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহানের ভূমিকা ছিলো লক্ষনীয়। চরম প্রতিকূল পরিবেশে অত্র উপজেলাবাসীর জন্য কাজ করে গেছেন নিরলসভাবে। রাতদিন করোনা পরিস্থিতি উন্নয়ন ও লকডাউনে ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন খাদ্যদ্রব্য। দুই সন্তানের জননী মুনতাসির জাহান করোনাকালীন সময়ে বেশিরভাগ সময় দিয়েছেন রামগঞ্জ উপজেলায়।

স্থানয় সুত্রে জানা যায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবার সন্তান হিসাবে নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান ছিলেন সাহসী এক যোদ্ধা। প্রতিনিয়ত করোনা ভাইরাস উপসর্গ ও করোনা আতঙ্কিত করলেও করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণে কখনো পিঁছপা হননি তিনি।

রামগঞ্জ মডেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যাপক হারুন অর রশিদ জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহানের হঠাৎ বদলিতে রামগঞ্জ উপজেলাবাসী একজন যোগ্য অভিভাবকের শূণ্যতা উপলব্দি করবেন। এসময় তিনি সরকারী চাকরীজীবি হিসাবে মুনতাসির জাহানের সার্বিক সফলতা কামনা করেন।

রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, উপজেলা প্রশাসন এবং থানা পুলিশের সমন্বয়ে করোনাকালীন সময়ে রামগঞ্জ উপজেলা ও পৌর শহরে কার্যক্রমগুলো ছিলো আন্তরিকতায় পরিপূর্ণ। আমি রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহানের মঙ্গল কামনা করছি, তিনি যেখানেই বদলি হয়ে যোগদান করবেন সেখানেই যেন সফলতার সাথে স্ব মহিমায় কাজ করে যেতে পারেন।

এ বিষয়ে রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুনতাসির জাহান জানান, সরকারী চাকুরীতে বদলি থাকবেই। তবে রামগঞ্জ উপজেলাবাসীর ভালোবাসা এবং অকৃত্রিম শ্রদ্ধা আমাকে কষ্ট দিবে। সবসময়ই মনে পড়বে এ উপজেলার মানুষের কথা। সুযোগ পেলেই রামগঞ্জ উপজেলাবাসীকে কাপ্তাই উপজেলায় বেড়াতে যাওয়ার অনুরোধ করে তিনি আরো জানান, আমিও সুযোগ পেলে রামগঞ্জ উপজেলাবাসীকে দেখতে আসবো। হয়তো কোন একদিন লক্ষ্মীপুর জেলায়ও বদলি হয়ে আসতে পারি সৃষ্টিকর্তার কৃপায়।

মতামত দিন