বোয়ালখালীতে ভুয়া রিপোর্ট: নিউ শেভরন ডায়াগনস্টিক সিলগালা ও ১ লক্ষ টাকা জরিমানা

বোয়ালখালী প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ায় নিউ শেভরন ডায়াগনস্টিক সিলগালা এবং ১ লক্ষ টাকা জরিমানা।
বোয়ালখালী উপজেলার শাকপুরা চৌমুহনী বাজার এর পূর্ব পাশের আজিজ মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় পরিচালিত ডায়াগনস্টিক সেন্টার নিউ শেভরন ডায়াগনস্টিক সেন্টার টি ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ায় সিলগালা করে বন্ধ করে দেওয়া হয়, এর মালিক আবু নইম চৌধুরী, পিতা- সালেহ আহমদ কে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।
চরখিজিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নইম চৌধুরী নিউ শেভরন ডায়াগনস্টিক সেন্টার মালিক বলে স্থানীয় সূত্রে জানাযায়।
১৫ জুলাই বিকালে বোয়ালখালী উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুনের নির্দেশে সহকারী কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরীর পরিচালিত মোবাইল কোর্টের সময় দেখা যায় ল্যাবটিতে কয়েকটি মেশিন থাকলেও রোগীদের কাছ থেকে স্যাম্পল নিয়ে পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট দিয়ে দেয়া হচ্ছে, এজন্য পূর্বেই ডায়াগনস্টিক সেন্টার এর প্যাডে ল্যাব টেকনিশিয়ান ও ডাক্তার এর স্বাক্ষর রাখা হয়। পরে রিপোর্ট বানিয়ে পূর্বেই স্বাক্ষরিত প্যাডে রোগীদের রিপোর্ট দেওয়া হত। রিপোর্ট দেওয়া প্যাডে প্রাপ্ত চিকিৎসক কে জিজ্ঞেস করলে তিনি জানান উক্ত ডায়াগনস্টিক সেন্টার এর সাথে তার কোনো প্রকার ম্পর্ক নাই।
ডায়াগনস্টিক সেন্টারটিতে কোনো প্রশিক্ষিত ল্যাব টেকনিশিয়ান বা ল্যাব সহকারী পাওয়া যায় নাই। ল্যাব পরিচালনার কাগজপত্র পরীক্ষা করে দেখা যায় সকল কাগজই মেয়াদোত্তীর্ণ।
পরে ম্যাজিস্ট্রেট মোজাম্মেল হক ডায়াগনস্টিক সেন্টারটি সীলগালা করে বন্ধ করে দেন এবং এর মালিক আবু নইমকে ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯ এ- এক লক্ষ টাকা জরিমানা করেন। মোবাইল কোর্টে সার্বিক সহযোগিতা করে বোয়ালখালী থানা পুলিশ।
এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার ভূমি ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডায়াগনস্টিক সেন্টারটিতে অভিযান চালানো হয়, মানুষয়ের জীবন নিয়ে খেলতে দেওয়া হবে না, অভিযান অব্যাহত থাকবে’।

মতামত দিন