ইয়াবা করবারি লাইজু থানা থেকে পালিয়ে আবার যেভাবে আটক হলো

 

পটিয়া প্রতিনিধিঃ

পটিয়া থানার পুলিশ হেফাজত থেকে বাথরুমের ভেন্টিলেটর দিয়ে পালিয়ে যাওয়া আলোচিত মাদক কারবারি মোছাম্মৎ লাইজুকে পুলিশ ফের গ্রেপ্তার করেছে।

জানা যায়, গত ৯ মে রাজধানীর সাভার থানায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর লাইজুকে পটিয়া থানায় দায়ের হওয়া মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিন রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি পায় পটিয়া থানা পুলিশ। আজ মঙ্গলবার পটিয়া থানা পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৩ দিনের রিমান্ডে এনেছে।

এর আগে গত ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক দিয়ে লাইজু ইয়াবার একটি চালান নিয়ে যাচ্ছিল। প্রতিমধ্যে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে লাইজুকে গ্রেপ্তার করা হয় । এসময় তার কাছ হতে ১৯শত পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। সেদিন থানা হেফাজত থেকে বাথরুমের ভেন্টিলেটর দিয়ে পালিয়ে যায় লাইজু। যদিও সাধারণত ভেন্টিলেটর দিয়ে লাইজুর মতো সুঠাম দেহের মহিলার কোন ভাবেই এ পথ দিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। এনিয়ে পটিয়ায় অনেক আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। দীর্ঘ ৫ মাস ২০ দিন পর মাদক আইনের মামলায় সাভার থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হন ।

পটিয়া থানা সূত্রে জানা যায়, মাদক কারবারি লাইজু প্রায় সময় কক্সবাজার থেকে ইয়াবা নিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় পাচার করে আসছিল। পটিয়া থানা পুলিশের হাতে ইয়াবাসহ আটকের পর লাইজু নিজেকে ‘আমাদের নতুন সময়’ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে পরিচয় দেন। সেসময় তার কাছ হতে পত্রিকাটির ভিজিটিং কার্ড ও আইডি কার্ড পাওয়া গিয়েছিল।

মাদক কারবারি লাইজুর কাছ হতে ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় সেদিন পটিয়া থানায় একটি মামলা রেকর্ড করলেও লাইজু থানা হাজত থেকে পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় এরপর আরো একটি মামলা রের্কড হয়। এছাড়া দায়িত্বে অবহেলার কারণে পটিয়া থাানার এএসআই শামসুদ্দিন ভুঁইয়া, কনস্টেবল মো. রিয়াজ ও মহিলা কনস্টেবল মোছাম্মৎ মমতাজকে প্রত্যাহার করা হয়।

এঘটনায় মাদক কারবারি লাইজুকে পুণরায় গ্রেপ্তার করতে পটিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালায়। কিন্তু গ্রেপ্তার করতে পারেনি। গত ৯ মে সাভার থানা পুলিশ লাইজুকে মাদক আইনের একটি মামলায় গ্রেপ্তার করে। এরপর লাইজুকে মাদক আইনের মামলায় শ্যোন অ্যারেস্ট দেখিয়ে তিনদিনের রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি পান তদন্ত কর্মকর্তা পটিয়া থানার উপ-পরিদর্শক হিরো বিকাশ। আজ মঙ্গলবার চট্টগ্রাম কারাগার থেকে লাইজুকে পটিয়া থানায় আনা হয়।

পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান, লাইজু থানা থেকে পালিয়ে যাওয়ার পর প্রায় সময় কক্সবাজার থেকে ইয়াবা নিয়ে যেত। তাকে গ্রেপ্তার করতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযানও করা হয়েছে। সে বিভিন্ন সময় আনোয়ারা, বাঁশখালী হয়ে কক্সবাজারে যেত। তার উপর পুলিশের বিশেষ নজরদারির কারণে তাকে পুলিশ আটক করতে পেরেছে।

মতামত দিন