লামায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও অসহায় মহিলার ভূমি বিরোধের নিষ্পত্তি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, নিজস্ব সংবাদদাতা, লামা:
লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নের সুতাবাদি এলাকায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হেলাল উদ্দিন ও অসহায় মহিলা মাহমুদা বেগমের ভূমি নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের নিষ্পত্তি হয়েছে। লামা থানায় মোঃ হেলাল উদ্দিনের করা অভিযোগের বিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন, মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে শনিবার (২৯ আগস্ট) বেলা ১১টায় লামা বাজারে দু’পক্ষকে নিয়ে শালিসী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, ১ম পক্ষ ফাইতং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হেলাল উদ্দিন ২য় পক্ষ মাহমুদা বেগমের পার্শ্ববর্তী জায়গা ক্রয় করে ভোগদখলে আছেন। অপরদিকে ২য় পক্ষ মাহমুদা বেগম বান্দরবানের লামায় উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সুতাবাদী গ্রামের মাহাতাব হাওলাদার এর মেয়ে। সে তার পিতা মাহাতাব হাওলাদারের নামীয় লামার ৩০৬নং ফাইতং মৌজায় আর-৮১১ হোল্ডিংয়ের ৩ একর জায়গায় বসতবাড়ি নির্মাণ ও বাগান সৃজন করে ভোগদখলে আছেন। উভয়ের মধ্যবর্তী কফিল উদ্দিনের জায়গার নিয়ে দু’পক্ষের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি সৃষ্টি হয়। বৈঠকে গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উভয়ের আনীত অভিযোগ গুলো পর্যালোচনা করে স্থায়ী শান্তির লক্ষ্যে দু’পক্ষের মধ্যে একটি আপোষনামা সম্পাদিত করেন।

আপোষনামায় উল্লেখ্য যে, মোঃ হেলাল উদ্দিন (১ম পক্ষ) অদ্য হইতে ভবিষ্যতের জন্য ২য় পক্ষের পিতার নামীয় আর/৮১১ হোল্ডিং এর দ্বিতীয় চৌহদ্দির জায়গাতে অনুপ্রবেশ করবনা এবং ২য় পক্ষের অভিযুক্ত জনৈক আমির হোসেন ও জয়নাল আবেদীনের হোল্ডিং দ্বয়ের জায়গায় মামলা মোকাদ্দমা চলমান বিষয়ে ২য় পক্ষের বিরুদ্ধে হস্তক্ষেপ করবেনা। এছাড়া আমির হোসেন ও জয়নাল আবেদীনের জায়গা ক্রয় করতে পারবেনা। ২য় পক্ষ অঙ্গীকার করেন যে, অদ্য হতে ভবিষ্যত জীবন পর্যন্ত ১ম পক্ষের বিরুদ্ধে কোন ধরনের মনোমালিন্য বা হিংসা বিদ্বেষ রাখব না। ভবিষ্যতে কাহারো প্ররোচনায় ১ম পক্ষের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ আনয়ন করবনা। অদ্য উপস্থিত সকলের সম্মুখে আমরা উভয়পক্ষ একে অপরের সহিত কোন হিংসা বিদ্বেষ না রেখে এলাকায় শান্তিপূর্ণ বসবাস করার অঙ্গীকার করছি।

১ম পক্ষ মোঃ হেলাল উদ্দিন বলেন, আজকের পর থেকে আমাদের মধ্যে আর কোন বিরোধ থাকবে না। আমাকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন করতে কতিপয় ব্যক্তি অসহায় মহিলাটিকে ডাল হিসাবে ব্যবহার করতে চেয়েছিল। মাহমুদা বেগম বলেন, আমাদের ভুল বুঝাবুঝির অবসান হয়েছে। আমরা শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করব।

এবিষয়ে ফাইতং ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন বলেন, মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উভয় পক্ষের ভূমি নিয়ে সৃষ্ট বিরোধের নিষ্পত্তি ও সমঝোতা করা হয়েছে।

মতামত দিন