বোয়ালখালীতে গরম পানি দিয়ে ঝলসে আহত সোহাগকে ঢাকায় হাসপাতালে হস্তান্তর

সৈয়দ মোঃ নজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ প্রতিনিধি :
বোয়ালখালীতে আবদুল খালেক সোহাগ (৪২) নামের একজনকে গরম পানি ছুড়ে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ আপন ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে।

রবিবার (১৮ অক্টোবর) সকালে উপজেলার আকুবদন্ডী গ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে দগ্ধ সোহাগের স্ত্রী পারভীন আক্তার বাদি হয়ে আবদুল আজিজ খোকন (৪০) ও তার স্ত্রী রুনা আক্তারের (৩৫) বিরুদ্ধে বোয়ালখালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, স্থানীয় মৃত সিরাজুল হকের চার ছেলের মধ্যে সোহাগ ও খোকনের মধ্যে সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। সোহাগ পেশায় রং মিস্ত্রি।

সোহাগের স্ত্রী পারভীন আক্তার জানান, রবিবার সকালে ঘুম থেকে উঠে সোহাগ টিউবওয়েলে মুখ ধুতে গেলে খোকন ও তার স্ত্রী রুনা মগে করে গরম পানি ছুড়ে মারেন। এসময় সোহাগ যন্ত্রণায় পুকুরের লাফিয়ে পড়েন। তার আত্ম চিৎকারে স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যান এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

দগ্ধ আবদুল খালেক সোহাগকে (৪২) দ্রুত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে প্রেরন করা হয়েছে বলেন তার স্ত্রী

বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল করিম বলেন, এ ঘটনায় আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। দগ্ধ সোহাগের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মতামত দিন