বোয়ালখালীতে পাঁচ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, শত কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার

সৈয়দ মোঃ নজরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা প্রতিনিধিঃ
বোয়ালখালী উপজেলা কালুরঘাট -মনসারটেক জাতীয় মহাসড়ক এর পাশের সকল অবৈধ স্থাপনা ২২ অক্টোবর সকাল থেকে উচ্ছেদ করে উপজেলা প্রশাসন, বোয়ালখালী এবং সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর। প্রচন্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুনের নেতৃত্বে শুরু হয় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়। দুই সপ্তাহ আগে থেকেই অবৈধ স্থাপনার মালিকদের গণবিজ্ঞপ্তিসহ মাইকিং করা হয়। আজ সকাল থেকেই দেখা যায় বেশিরভাগ স্থাপনা সরিয়ে নিচ্ছেন ব্যবহারকারীরা। অভিযানে প্রায় ৫ শতাধিক দোকান, কমিউনিটি সেন্টার, শিল্প প্রতিষ্ঠান এর বর্ধিত অংশ উচ্ছেদ করা হয় মিলিটারি পোল এলাকা থেকে কালুরঘাট সেতুর পূর্ব পাড় পর্যন্ত। দিনব্যাপী এই অভিযানে মিলিটারি পোল, শাকপুরা বাজার, ফুলতল বাজার, পেতন আউলিয়ার গেট, কালুরঘাট বাজার সংলগ্ন প্রায় ৩ শতাধিক একর সড়ক ও জনপথ বিভাগের ভূমি উদ্ধার করা হয়।

অভিযান এ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দ্বায়ীত্ব পালন করেন উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী।

অভিযান দেখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন সাধারন জনতা। বোয়ালখালী উপজেলার মধ্য দিয়ে চলাচলের মূল সড়ক এ যানজট মুক্ত হওয়ায় স্বস্তিতে চলাচল করতে পারবেন বলে জানান এই সড়ক ব্যাবহারকারীরা।

অভিযানে ছিলেন সড়ক ও জনপথ এর পটিয়া উপবিভাগ এর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী জনাব, উপ সহকারী প্রকৌশলী টোয়াইন চাকমা সহ বিপুল সংখ্যক কর্মচারী। আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন এসআই নেছার এর নেতৃত্বে বোয়ালখালী থানার একটি টিম। এছাড়াও অবৈধ স্থাপনা সমূহের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বোয়ালখালীর সদস্যরা।

অভিযান সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আছিয়া খাতুন বলেন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও সরকারি জমি উদ্ধার এর তৎপরতা অব্যাহত থাকবে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন সরকারি জমি দখল রোধ ও উদ্ধার এই অভিযান চলবে, কাউকেই কোন ছাড় দেওয়া হবে না।

মতামত দিন