সাগর পাড়ে প্রেমিকাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, প্রেমিকসহ ৩জন শ্রীঘরে

প্রতিবেদক: সাগর পাড়ের আউটার রিং রোডে এক তরুনী পোষাক কর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানাধীন উত্তর মধ্যম হালিশহরে রিংরোডের এই ঘটনায় কথিত প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন- কথিত প্রেমিক শফিকুল ইসলাম, বাদশা ও শাহীন। আর পলাতক রয়েছে জোবাইর।

গতকাল রোববার দিবাগত রাত (১ অক্টোবর) আড়াইটার দিকে বন্দর থানার উত্তর মধ্যম হালিশহর এলাকার আউটার রিং রোডে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বন্দর থানার ওসি নিজাম উদ্দিন বলেন, ‌‘গতকাল রাত আড়াইটার দিকে নাইট ডিউটি করার সময় উত্তর মধ্যম হালিশহরে আমাদের একটা টিম একজন পোশাক কর্মী যুবতীকে বিধ্বস্ত অবস্থায় পায়। তখন ওই যুবতী পুলিশকে জানায়, তাকে কথিত প্রেমিকসহ চার জনে মিলে জোরপূর্বক সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে। তখন তার দেওয়া তথ্যমতে প্রেমিকসহ তিনজনকে দিনভর অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করা হয়। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।’

ওসি নিজাম আরো বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা দাবি করছে, তারা পূর্ব পরিচিত একজনের মাধ্যমে ওই যুবতীকে টাকার বিনিময়ে নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়ার মাধ্যমেই শারীরিক সম্পর্ক করেছেন। অন্যদিকে ভিকটিমের দাবি, তার সাথে আসামিদের মধ্যে শফিকুলের রিলেশন ছিল তার সাথে বিকেলে আউটার রিং রোডে ঘুরতে ঘুরতে রাত হয়ে যায়। পরে প্রেমিকসহ অন্য তিনজন যোগ দেয়। এরপর জোর করে তাকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করে।’

এ ঘটনায় চারজনের মধ্যে গ্রেপ্তার তিনজনকে আদালতে হাজির করা হয় সোমবার বিকেলে। এসময় তাদের প্রত্যেককে পাঁচ দিন করে রিমান্ডে আনার আবেদন করে পুলিশ। তবে আদালত আগামীকাল মঙ্গলবার রিমান্ড শুনানির দিন নির্ধারণ করে প্রত্যেক কারাগারে পাঠিয়েছেন বলেও জানান ওসি বন্দর।

মতামত দিন