বিধি-নিষেধে থার্টি ফার্স্ট নাইট

করোনাকালের থার্টি ফার্স্ট নাইট যেকোনও বছরের চেয়ে ব্যতিক্রম। ইংরেজি বছরের প্রথম প্রহরকে কেন্দ্র করে ত্রিমাত্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এবারই প্রথম থার্টি ফার্স্ট নাইটে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতে থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে রাজধানীসহ সারা দেশে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সবাইকে যার যার ঘরে থেকে থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপনের আহ্বান জানিয়েছে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী।

পুলিশ বলছে, কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে, সেজন্য আগে থেকেই গোয়েন্দা নজরদারি শুরু হয়েছে। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করা হলে কঠোর হাতে দমন করা হবে।

এদিকে ত্রিমাত্রিকভাবে থার্টি ফার্স্ট নাইট কেন্দ্রিক নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে র‌্যাব । প্রথম পর্যায়ে অলিগলিতে সাদা পোশাকে র‍্যাব সদস্যরা অবস্থান নেবেন। দ্বিতীয় পর্যায়ে পোশাকধারী সদস্যরা বিভিন্ন স্থানে তাঁদের উপস্থিতির জানান দেবেন। এর পাশাপাশি র‌্যাবের সাইবার মনিটরিং দল নিরাপত্তা রক্ষায় কাজ করবে।

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে র‌্যাবের সাইবার ইউনিট বিশেষ নজরদারি চালাবে।

অন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করবে র‌্যাব।

মতামত দিন