অবৈধ সংযোগ নেয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
জোরপূর্বক বিদ্যুতের খুঁটিতে উঠিয়ে দিলে এক শিক্ষার্থীর অস্বাভাবিক মৃত্যু হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে ঘটনাটি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চরকলাকোপা গ্রামের।

জানা গেছে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর কলাকোপা গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে স্থানীয় মাদ্রাসার কোরআনে হাফেজ মোঃ তানজু(১৭)কে গত বছরের নভেম্বরে ১৪ তারিখে ভাত খাওয়ার সময় ডেকে নিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে তুলে দেয় একই এলাকার আবুল কালাম ওরফে আবু সরদারের ছেলে মোঃ কবির হোসেন(৩৫)। তানজু বৈদ্যুতিক হিটারে উঠতে নারাজ হওয়াতে চড় থাপ্পড় মেরে জোরপূর্বক তাকে ফেলে উঠতে বাধ্য করে কবির। এমন সময় জনৈক পথচারী ও বৈদ্যুতিক পিলারে উঠতে বারণ করে তদুপরি ও কোভিদ হোসেন তাকে হুমকি ধমকি দিয়ে ফেলে উঠে তাকে অবৈধভাবে সংযোগ স্থাপন করে দেয়ার জন্য। এসব মত তারে হাত দেওয়ার আগে তানজু বলে আপনি পল্লীবিদুৎ অফিসে ফোন দেন লাইন বন্ধ করতে প্রতারক কোভিদ হোসেন কানে মোবাইল দিয়ে কথা বলার বাহানা করে তানজু কে বিদ্যুৎ নেই বলে কাজ করার ধমক দেয় তানজু সংযোগ স্থাপনে লাইনে হাত দিতেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিচে পড়ে ঘটনা বেগতিক দেখে তানজু কে নিচে আহত অবস্থায় রেখে পালিয়ে যায় কবির হোসেন পরে ঘটনাস্থল থেকে রায়হান, দুলাল ও জাফর নামের লোকজন উদ্ধার করে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এই নিয়ে রামগতি থানা ডোমজুড় পিতা বাদী হয়ে অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন যার নং ০৩/২০.

এদিকে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে কবির হোসেন, আবুল কালাম ও রেহানা বেগমকে আসামি করে মামলা (সিআর নং ৩২১/১৯) দায়ের করলে কবির হোসেন গ্রেফতার হয়।
আসামি কবির হোসেন এতই ধূর্ত যে তানজু হত্যার ঘটনাটাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের দিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে মর্মে সংবাদ প্রকাশ করায়। যা মূলত কবির হোসেন জোরপূর্বক বৈদ্যুতিক খুঁটিতে অবৈধ সংযোগ স্থাপনে বাধ্য করায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা যায় তানজু।

মতামত দিন