লামা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মাঠ কর্মীদের পদবী ব্যবহারে অনিয়ম

প্রতীকি ছবি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, লামা
লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গুটিকয়েক মাঠ কর্মীদের প্রকৃত পদবী গোপন করে দীর্ঘদিন যাবৎ উদ্ধর্তন পদবী ব্যবহার করে আসার অভিযোগ উঠেছে। এতে করে মাঠ কাজের বিশৃংখলা সৃষ্টি হচ্ছে বলে খোদ উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বান্দরবান সিভিল সার্জন ডাঃ অংসুইপ্রু মারমা।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের গত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪ইং তারিখে সিএস/বি-বান/শা-১২/২০১৪ স্মারকে দেয়া এক পত্রে লামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ‘সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক’ সমীরন বড়ুয়াকে ‘স্বাস্থ্য পরিদর্শক’ পদে কাজ করার যে আদেশ দিয়েছিলেন তা প্রত্যাহার করা হয়। কিন্তু সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমীরন বড়ুয়া অফিস আদেশকে অমান্য করে অদ্যবদী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ইনচার্জ পদবী ব্যবহার করে আসছেন।

গত ৩০ ডিসেম্বর ২০১৪ইং তারিখের নির্দেশনা পালন না করায় প্রায় ৪ বছর পরে গত ২৪ জানুয়ারী ২০১৯ইং আরেক পত্রে সিভিল সার্জন বান্দরবান লামা উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তাকে উক্ত কর্মচারীর বিরুদ্ধে পত্র প্রাপ্তির ৩ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে তার কার্যালয়কে অবহিত করতে অনুরোধ করেন। সেই নির্দেশনাও কোন আলোর মুখ দেখেনি। একই চিঠিতে স্বাস্থ্য সহকারী মিকু বড়ুয়াকে সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক পদবী ব্যবহারে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়।

তাতেও লামা উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় গত ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ইং সিএস/বি-বান/প্রশা-১/২০১৯/৩৭৩ স্মারকের এক পত্রে সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমীরন বড়ুয়া ও স্বাস্থ্য সহকারী মিকু বড়ুয়াকে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়। সেই পত্রও ফাইল বন্ধি হয় অজ্ঞাত কারণে। একই চিঠিতে বলা হয়, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমীরন বড়ুয়া ও স্বাস্থ্য সহকারী মিকু বড়ুয়া নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও কর্তৃপক্ষের অনুমতি ব্যতিরেকে উদ্ধর্তন পদবী ব্যবহারের বিষয়টি সরকারী কর্মচারী শৃংখলা ও আপিল বিধিমালা ১৯৮৫ এর পরিপন্থি। উক্ত পত্র প্রাপ্তির তিন কর্মদিবসের মধ্যে উক্ত কর্মচারীদ্বয়ের বিরুদ্ধে গৃহীত প্রশাসনিক ব্যবস্থার প্রতিবেদন সিভিল সার্জন অফিসে প্রেরনের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। অদৃশ্য কোন ইশারায় সেই নির্দেশও ফাইলে চাপা পড়ে।

এবিষয়ে সমীরণ বড়ুয়া বলেন, একসময় আদেশটা থাকলেও পরে তা সাবেক উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মোহামুদুল স্যার সিভিল সার্জনের সাথে আলাপ করে অতিরিক্ত দায়িত্বের বিষয়ে সীল বানাতে বলে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ শাহবাজ একান্ত আলাপকালে বলেন, চিঠিপত্র গুলো আমার অত্র কার্যালয়ে যোগাদানের আগে। বিষয়টি খবর নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বান্দরবান সিভিল সার্জন ডাঃ অংসুইপ্রু মারমা বলেন, বিষয়টি দুঃখজনক। দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে বলা হবে।

মতামত দিন