লক্ষ্মীপুর হাজিগঞ্জ ও গৌরীপুর জেলা সড়ক ২টি আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নীত হতে যাচ্ছে!

অ আ আবীর আকাশ, লক্ষ্মীপুরঃ
লক্ষ্মীপুরের বাগবাড়ি হতে উৎপন্ন পালেরহাট কালিবাজার মীরগঞ্জ রামগঞ্জ ফকির বাজার চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ হয়ে কুমিল্লার কচুয়া গৌরীপুর পর্যম্ত জেলামহাসড়ক দুইটিকে একত্রিকরণ করে ‘আঞ্চলিক মহাসড়কে’ উন্নীত হতে যাচ্ছে। এতে করে ঢাকামুখী যানবাহনগুলো স্বল্প সময়ে এই সড়কে রাজধানীর সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারবে।

গেলো বছরের নভেম্বরের ২৬ তারিখে সরকারি হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির পিটিশন বিভাগের সদস্য ও চাঁদপুর-১ আসনের সাংসদ ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর প্রেরিত বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ হতে প্রাপ্ত ডিওপত্রে অত্র জেলা সড়ক দুইটির গুরুত্বারোপ করেন। এ পত্রের আলোকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের মহাসড়ক বিভাগ পরিকল্পনা শাখার (অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত) উপসচিব এ এম এম রিজওয়ানুল হক ৮ ডিসেম্বর সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষসহ জেলা সড়ক ও জনপদ বিভাগকে পরিপত্রের মাধ্যমে সড়কটির উপর টেকনিক্যাল সার্ভে রিপোর্টসহ পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব প্রেরণের নির্দেশ দেন।

জেলা মহাসড়ক থেকে আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নীতকরণ করা হলে বর্তমান ১৮ ফুটের সড়ক ২৪ ফুটে উন্নীতকরণ করা হবে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী ড.মোহাম্মদ আহাদ উল্লাহ বলেন-‘আমরা চিঠি পাওয়ার পর টেকনিক্যাল রিপোর্টসহ পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাবনার পাইল মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেছি। ফাইল পাস হয়ে এলে দ্রুতই আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নীতকরণ কাজ শুরু হবে।

লক্ষ্মীপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগের সহকারি প্রকৌশলী মোঃ মোজাম্মেল হক(২) বলেন-‘আঞ্চলিক মহাসড়ক করনের বিষয়ে চিঠি পেয়ে আমি সড়ক পরিদর্শন করেছি। লক্ষ্মীপুর অংশের ৩৮ কিলোমিটার সড়কে আঁকাবাঁকা বেশি । আমাদের প্রস্তাবনায় আমরা সড়কের আঁকাবাঁকা গুলোর ‘যেসব স্থান অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ’ সেগুলোকে সহজীকরণ করার বিষয়ে প্রস্তাবনা করেছি।’

আঞ্চলিক মহাসড়ক হলে উপকূলীয় জনপদ লক্ষ্মীপুরবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হবে এবং রাজধানী ঢাকার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সুগম হবে। একদিকে জরুরী রোগী পরিবহন যেমন সহজ হবে তেমনি এতদঞ্চলের কাঁচা শাকসবজি আমদানি-রপ্তানিতে সময় ও খরচ কম লাগবে।

মতামত দিন