চুরি করতে গিয়ে গণপিটুনিতে মৃত্যু, চেয়ারম্যানকে জড়িয়ে হত্যা মামলা!

অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুরঃ
চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে গণপিটুনিতে আহত চিকিৎসাধীন অবস্থায় নোয়াখালী সদর হাসপাতালে আবদুস শহীদ নামের একজনের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে লক্ষ্মীপুর সদরের চর রমনী মোহন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়ালকে জড়িয়ে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে জানা গেছে।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, ১৪ জুন সোমবার রমনী মোহন ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের আব্দুল হক লাড়ির ঘরে চুরির সময় একই এলাকার আব্দুস শহীদকে হাতেনাতে ধরে গণপিটুনি দেয় স্থানীয়রা।
খবর পেয়ে আবদুস শহীদের স্বজনরা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্মরত চিকিৎসকরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আবদুস শহীদের মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় আবদুস শহীদের স্ত্রী বাদী হয়ে ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও ১৫ জনকে অজ্ঞাত করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এতে চর রমণীমোহন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ ছৈয়াল ও তার ছেলে আবু সুফিয়ানকে হয়রানি করার উদ্দেশ্যে মামলায় জড়ানো হয়েছে বলে স্থানীয়রা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকেই জানিয়েছেন যে, চেয়ারম্যানের আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘায়েল করার জন্য একটি কুচক্রী মহল তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে এবং তাকে নানাভাবে হেস্তনেস্ত করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে। এই হত্যা মামলায় তাকে জড়িয়ে সেটি প্রমাণ করছে তারা।

এ বিষয়ে লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার ড. এইচ এম কামরুজ্জামান বলেন -‘ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মতামত দিন