কক্সবাজার সৈকতের প্যারাসেলিং থেকে ছিটকে পড়ে এক নারী পর্যটন আহত

মোঃ নূরুল হোসাইন,কক্সবাজার:
কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে উড়ন্ত প্যারাসেইলিং থেকে ছিটকে পড়ে তিন্নি আক্তার (২৬) নামের পর্যটক নারী আহত হয়েছেন। সৈকতের দরিয়া নগর পয়েন্টে বিকেল সাড়ে ৫ টায় ঘটনাটি ঘটেছে।
আহত তিন্নি আক্তার ঢাকার খিলক্ষেতের তারিকুল হকের স্ত্রী। তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে জেলা হাসপাতাল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
ঘটনার বিষয়টি বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) সৈয়দ মুরাদ ইসলাম।
প্যারাসেইলিংয়ের মালিক দরিয়া নগর পয়েন্টের ব্যবসায়ী ফরিদ আলম বলে জানা যায়।
স্থানীয় বাসিন্দা পারভেজ বলেন, নিয়ম ভেঙে সন্ধ্যা ৬টায় প্যারাসেইলিং করাচ্ছিলেন ফরিদ আলমের মালিকানাধীন প্যারাসেইলিংয়ের চালক। অন্ধকার হয়ে গেলে প্যারাসাইলিং নিচে নেমে আসার সময় সৈকতের বালিয়াড়িতে পর্যটক নারীসহ প্যারাসাইলিং থেকে ছিটকে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
ঘটনা প্রসঙ্গে আহতের স্বামী তারিকুল হক বলেন, ‘আমরা ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে সপরিবারে কক্সবাজার আসি। বাচ্চাসহ আমরা ছিলাম ৪ জন। কক্সবাজারে এসে প্রথমে আমরা মারমেইড রিসোর্টে উঠি। পরে আজ বৃহস্পতিবার সকালে হোটেল ওশান প্যারাডাইসের ৪১০ নম্বর রুমে উঠি। বেড়ানোর উদ্দেশ্যে আজ বিকেলে শহরের অদূরে দরিয়া নগর গেলে আমার স্ত্রীর প্যারাসেইলিংয়ের শখ চাপে।
৫ মিনিটের জন্য ২ হাজার টাকা ভাড়ায় প্যারাসাইলিংয়ে চড়ে সে। পরে প্যারাসেইলিং নামার সময় বালিয়াড়িতে পড়ে দুই পায়ে গুরুতর ব্যথা পায় তিন্নি।
তারিকুল বলেন, আঘাত পাওয়ার সাথে সাথে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে আনা হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রাইভেট হাসপাতাল ফুয়াদ আল খতিবে ভর্তি করা হয়। এখন তার অপারেশন চলছে। চিকিৎসক কী বলে তা শোনে ঢাকায় নিয়ে যাবো।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মুরাদ ইসলাম বলেন, নারী পর্যটক প্যারাসেইলিং করতে গিয়ে পড়ে আহত হওয়ার খবর পেয়েছি। বিচ কর্মীদের সহযোগিতায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। তিনি দুই পায়ে আঘাত পেয়েছেন।’
প্যারাসেইলিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নিয়ম ভেঙে প্যারাসাইলিং চালানোর ব্যাপারে খবর নেয়া হচ্ছে। ঘটনা সত্য প্রমাণিত হলে প্যারাসাইলিংয়ের মালিক ও চালকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

মতামত দিন