মিডিয়া হচ্ছে জনগণের শক্তি : লক্ষ্মীপুরে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ

অ আ আবীর আকাশ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অভাবনীয় উন্নয়নের এ দেশে মানুষ মৃত্যুর পর কবস্থানের জায়গা হবে না তা কিভাবে সম্ভব! একটা ভাল নিউজের কল্যাণে মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নত হয়। পুলিশ কিন্তু এসব নিউজের পক্ষে ভাল ভূমিকা রাখে। মিডিয়ার প্রতি পুলিশের নজরদারী রয়েছে সব সময়। আপনারা জানেন, পুলিশের প্রত্যেক ইউনিটে সোস্যাল মিডিয়ার গুরুত্ব রয়েছে। লক্ষ্মীপুরে বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ ভূমিহীনদের জন্য নির্মিত গণ কবরস্থানের ফলক উম্মেচনের আয়োজিত একমত বিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন।

দুপরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের সুতারগোপ্টা নামক এলাকায় ভূমিহীনদের জন্য নির্মিত গণকবর ও মসজিদের ফলক উম্মেচন ও মতবিনিময় সভার আয়োজন করে জেলা পুলিশ।

মতবিনিময় সভায় তিনি আরো বলেন, মানুষে পাশে থাকতে হবে। মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করতে হবে। লক্ষ্মীপুরে ভূমিহীন মানুষের কোন কবর নেই। বিষয়টি মিডিয়ার মাধ্যমে দেখে খারাপ লাগলো। পরে সম্পূর্ন নিজের অর্থায়নে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ও লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশের সহযোগীতায় জমি ক্রয় করে গণকবর এ মসজিদ নির্মানের ব্যবস্থা করা হয়।

কবর সংকট বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে আইজিপির স্ত্রীর নজরে আসলে নিজস্ব অর্থায়নে একটি জায়গা ক্রয় করার জন্য তিনি চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ও জেলা পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেন। পরে তাদের প্রচেষ্টায় জেলার সুতারগোপ্টার চরমনসা গ্রামে সাড়ে ২৯ শতাংশ জায়গা ক্রয় করে কবর, মসজিদ ও লাশ গোসলের জায়গা করে দেয়া হয়।

জেলা পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির সভানেত্রী জিসান মীর্জা। বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ড. আনোয়ার হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার ড. এইচ এম কামরুজ্জামান প্রমূখ। পরে ভূমিহীন আ. রহমানের হাতে গণকবর ও মসজিদের দলিল হস্তান্তর করা হয়।

মতামত দিন