`চট্টগ্রামের সিআরবি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণ কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়’

ঐতিহ্ , পরিবেশ ধ্বংস করে জনমতের বিরুদ্ধে গিয়ে কোন উন্নয়নই কাম্য নয়। প্রাণ-প্রকৃতি সমৃদ্ধ, হেরিটেজ ঘোষিত চট্টগ্রামের সিআরবি ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণ কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

চট্টগ্রামের মানুষকে রক্তচক্ষু দেখিয়ে লাভ হবে না। সিআরবি বাঁচাও আন্দোলনেও জিতবে চট্টগ্রামের মানুষ। কারণ সিআরবি চট্টগ্রামবাসীর ফুসফুস। এ ফুসফুসকে ধ্বংস করে হাসপাতাল নির্মাণ করতে দেবো না আমরা। সিআরবি এলাকা হলো চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক অক্সিজেনের অন্যতম ক্ষেত্র। এতে হাসপাতাল কিংবা অন্য কোন স্থাপনা করলে এর পরিবেশ প্রকৃতি নষ্ট হবে এবং এর প্রভাব চট্টগ্রাম মহানগরের ৭০ লক্ষ মানুষকে ভোগ করতে হবে। এ দাবি আদায়ে আমরা বদ্ধ পরিকর। এ লক্ষ্যে আমরা অবিচল।

সোমবার (১১ অক্টোবর) নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের উদ্যোগে আয়োজিত ধারাবাহিক অবস্থান কর্মসূচি উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন।

বক্তারা আরো বলেন, সিআরবিতে প্রস্তাবিত হাসপাতালের জায়গাতে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধে শহীদ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান চাকসু জি.এস. আবদুর রবসহ আরো নয়জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদের কবর। এই কবরের উপর ব্যক্তিমালিকানাধীন মুনাফামুখী হাসপাতাল শুধু নয় যে কোনো স্থাপনাই হবে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের অবমাননার শামিল। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর আস্থা রেখেছি। আমাদের পরিবেশ বান্ধব নেত্রী কখনোই এখানে বানিজ্যিক স্থাপনা হতে দেবেন না।

বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. ইদ্রিস আলী সভাপতিত্বে, অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুস, কবি হোসেন, আ.ফ.ম মোদাসের আলী, মোরশেদ আলম চৌধুরী,মাঈন উদ্দিন কোহেল, ঋত্বিক নয়ন, দিলরুবা খানম, সাবের আহমেদ, বিপ্লব কুমার সেন, আওয়ামী লীগ নেতা তাপস দে, মোরশেদ আলম, মাহমুদুল করিম, মায়মুন উদ্দিন মামুন, মোহাম্মদ হানিফ, নুরুল আজম, মোহাম্মদ তামিম,অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাজ্জাদ হোসেন জাফর।

মতামত দিন