জাতিসংঘে জেরুজালেম ইস্যু: কারা ইসরাইলের পক্ষে,কারা বিপক্ষে

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: বৃহস্পতিবার জাতিসংঘে সাধারণ পরিষদের এক জরুরী বৈঠকে জেরুজালেম ইস্যুতে ভোটাভুটি অনুষ্ঠিত হয়। এতে ১৭২ দেশের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের ঘোষণাকে ‘বাতিল ও প্রত্যাখ্যান’ করে একটি রেজ্যুলেশন পাস হয়।

জাতিসংঘের ইতিহাসে অভূতপূর্ব এ ঘটনার মাধ্যমে জেরুজালেম ইস্যুতে কোনঠাসা হয়ে পড়ল যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইল। আগের দিনের যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি ও চাপকে অগ্রাহ্য করে ফিলিস্তিনের সমর্থনে ভোট দেয় ১২৮ টি দেশ। মাত্র নয়টি দেশ ছিল ইসরাইলের পক্ষে। ৩৫টি দেশ ভোট দানে বিরত থাকে।

বৈঠকে আরব ও মুসলিম দেশগুলো ঐক্যমত্য প্রকাশ করে। একইসাথে তাদের সাথে ফিলিস্তিনের সমর্থনে ভোট দেয় ইউরোপের শক্তিধর রাষ্ট্র রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, ইতালি, জার্মানি, ফ্রান্সসহ ২০টিরও অধিক দেশ। এশিয়ার জাপান, চীন, দক্ষিণ কোরিয়া, উত্তর কোরিয়া, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরসহ আফ্রিকা ও আমেরিকা অঞ্চলের উল্লেখ্য দেশসমূহ।

আরও যারা ইসরাইলের বিপক্ষে ভোট দিয়েছে
স্পেন, সুইজারল্যান্ড, সুইডেন, বেলজিয়াম, পর্তুগাল, ডেনমার্ক, নরওয়ে, বুলগেরিয়া, আয়ারল্যান্ড, গ্রীস, আর্মেনিয়া, অস্ট্রিয়া, নেদারল্যান্ডস, ফিনল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, উরুগুয়ে, ভেনিজুয়েলা, ভিয়েতনাম, জিম্বাবুয়ে, চিলি, এন্ডোরা, অ্যাঙ্গোলা, বার্বাডোস, বেলারুশ, বেলিজ, বলিভিয়া, বোতসওয়ানা, ব্রাজিল, ব্রুনাই, বুরকিনা ফাসো, বুরুন্ডি, কম্বোডিয়া, কমোরোস, কঙ্গো, কোস্টারিকা, আইভরি কোস্ট, কিউবা, সাইপ্রাস, জিবুতি, ডোমিনিকা, ইকুয়েডর, ইরিত্রিয়া, এস্তোনিয়া, ইথিওপিয়া, গ্যাবন, গাম্বিয়া, গ্রেনাডা, গিনি, গায়ানা, আইসল্যান্ড, লাওস, লাইবেরিয়া, লিচেনস্টাইন, লিথুনিয়া, লাক্সেমবার্গ, মাদাগাস্কার, মালি, মাল্টা, মরিতানিয়া, মরিশাস, মোনাকো, মন্টিনিগ্রো, মোজাম্বিক, নামিবিয়া, নিকারাগুয়া, নাইজার, পাপুয়া নিউ গিনি, পেরু, সেন্ট ভিনসেন্ট এবং গ্রেনাডিনস, সার্বিয়া, সেচেলস, স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া, সুরিনাম, প্রাক্তন যুগোস্লাভ প্রজাতন্ত্র ম্যাসেডোনিয়া, তিউনিসিয়া, ইউনাইটেড প্রজাতন্ত্রের তানজানিয়া।

ইসরাইলের পক্ষে ছিল মাত্র ৯ টি দেশ।এরমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া বলতে গেলে উল্লেখযোগ্য কেউ ছিল না ইসরাইলের পক্ষে।

যুক্তরাষ্ট্র, মার্শাল আইল্যান্ড, হন্ডুরাস, গুয়াতেমালা, টোগো, পালাউ, মাইক্রনেশিয়া আর নাউরু।

ভোটদানে যারা বিরত ছিল
কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, প্যারাগুয়ে, ফিলিপাইন, পোল্যান্ড, ক্যামেরুন, ভুটান, মেক্সিকো, আর্জেন্টিনা, রোমানিয়া, বাহামা, বেনিন, বসনিয়া-হার্জেগোভিনিয়া, কলম্বিয়া, ক্রোয়েশিয়া, চেক প্রজাতন্ত্র, ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র, গায়েনা, ফিজি, হাইতি, হাঙ্গেরি, জ্যামাইকা, কিরিবাতি, লাতভিয়া, লেসোথো, মালাবি, পানামা, রুয়ান্ডা, সলোমন দ্বীপপুঞ্জ, দক্ষিণ সুদান, ত্রিনিদাদ-টোবাগো, টুভালু, উগান্ডা, ভানুয়াতু, এন্টিগুয়া-বার্বুডা।

উল্লেখ্য, ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প এক ঘোষণায় জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন সেইসাথে মার্কিন দূতাবাসকেও তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে সরিয়ে আনার ঘোষণা দেন। তার এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মুসলিম দেশ সমূহ সহ বিশ্বের অধিকাংশ দেশে প্রতিবাদ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ফ্রান্স, জার্মানি সহ বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোর সরকার এ সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখ্যান করে।

গত সোমবার একই ইস্যুতে নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের ভেটো দিলে আরব ও মুসলিম দেশগুলোর আহবানে সাধারণ পরিষদে এ ভোটাভুটির আয়োজন হয়। সুত্র: আল জাজিরার সংবাদ।

 

মতামত দিন