প্রশ্ন ফাঁস নতুন কিছু নয়, যুগযুগ ধরে হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রশ্নপত্র ফাঁস নতুন কিছু নয় বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। আমরা প্রযুক্তি ব্যবহার করি, এটা এড়ানো যাবে না।

আজ সোমবার গণভবনে ইতালি সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ইতালির রোমে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (ইফাদ) পরিচালনা পর্ষদের ৪১তম বৈঠকে অংশগ্রহণ শেষে দেশে ফিরে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

এসময় পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁস কত মিনিট আগে হয়? ২০ মিনিট আগে, এক ঘণ্টা আগে। কেউ যদি চট করে ছবি তুলে প্রকাশ করে দেয়, আমাদের কি করার আছে?’

তিনি বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে ২০ মিনিট বা এক ঘণ্টা আগে। এতো ট্যালেন্ট কোন ছাত্র যে এই সময়ের মধ্যে পড়ে মুখস্ত করে লিখবে। মন্ত্রী আর সচিব গিয়ে তো প্রশ্নফাঁস করেনি, তাদের কেন সরে যেতে হবে?’

সাংবাদিকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সব জায়গায় আপনাদের এজেন্ট আছে। যে এই প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত তাকে খুঁজে বের করে দেন, আমরা তাদের শাস্তি দেব। এসময় বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) পদ্ধতি বন্ধ করে দেয়ার পক্ষে সাংবাদিকদের সমর্থন চান প্রধানমন্ত্রী।

প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে সমালোচকদের প্রতি তীর্যক মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘কোনো দিকে দোষ না পেয়ে একটা নিয়ে খোঁচাখুঁচি।’

সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ইতালি ও ভ্যাটিকান সিটিতে চার দিনের সরকারি সফর শেষে ১৭ জানুয়ারি শনিবার রাতে দেশে ফিরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মতামত দিন