শিক্ষকদের হাতে অস্ত্র দেওয়ার পক্ষে ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে, ফ্লোরিডার যে স্কুলটিতে বন্দুকধারীদের হামলায় ১৭ জন নিহত হয়েছে সেখানে সশস্ত্র শিক্ষক থাকলে হামলাটি প্রতিহত করা যেতো। তিনি বলেন, স্কুলটির শিক্ষক বা অন্যান্য কর্মচারিদের মধ্যে কারো হাতে অস্ত্র থাকলে হামলাকারীকে খুব দ্রুত নিষ্ক্রিয় করা যেত।

পাশাপাশি অন্ত্র বিক্রির সময় ক্রেতার অতীত ভালো করে যাচাই বাছাই করার প্রতিও জোর দেন এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ফ্লোরিডার ওই স্কুলে বন্দুকধারীদের হামলায় বেঁচে যাওয়া কয়েকজন ভুক্তভোগীর সঙ্গে সাক্ষাতকালে এসব কথা বলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেসময় তারা ফ্লোরিডার সিনেটরকে রাজ্যটিতে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে রাখার প্রতি জোর দাবি জানান।

হোয়াইট হাউসে আয়োজিত ঐ সাক্ষাৎ পর্বে ট্রাম্প বলেন, আমরা ব্যক্তির অতীত যাচাইয়ে আরও কঠোর হব। অস্ত্র ক্রয়ে ইচ্ছুক ব্যক্তির মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি আরও সতর্ক হব। তিনি আরও বলেন, অতীতে যেমন শুধু কথাই হয়েছে এ বিষয়ে, এখন আর তা হবে না।

একই সময় দেশটির জাতীয় রাইফেল অ্যাসোসিয়েশনের প্রতি কিছু নির্দেশনাও দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

এসময় বিদ্যালয়টিতে অস্ত্রধারী শিক্ষক থাকলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরও কম হতে পারত বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, যদি তোমাদের (শিক্ষার্থীদের) মধ্যে এমন শিক্ষক থাকত যার কাছে অস্ত্র ছিল, তাহলে তিনি খুব সহজেই হামলাটি প্রতিহত করতে পারতেন।

এসময় যুক্তরাষ্ট্রে চলমান ‘অস্ত্রহীন অঞ্চল’ ক্যাম্পেইনেরও সমালোচনা করেন তিনি। নিজের স্বভাবচরিত আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে তিনি বলেন, “অস্ত্রহীন অঞ্চল হল এমন এক জায়গা যেখানে বাইরের মানুষ ভাববে যে, এখানে ঢুকে হামলা করা যায়। আর এমন ধারণা শুধু পাগলই ভাবতে পারে, কারণ তারা ভীরু”।

এরই মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কিছু অঙ্গরাজ্যে হ্যান্ডগান নিয়ে কলেজ প্রাঙ্গণে প্রবেশ নিষেধ। তবে ফ্লোরিডায় এখনও তা নিষিদ্ধ নয়।

সূত্রঃ বিবিসি

মতামত দিন