‘বিচারকাজে সর্বোচ্চ সততা দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হবে’

চট্টগ্রামের বিদায়ী মাননীয় মহানগর দায়রা জজ মোঃ শাহেনূর বলেছেন, ‘বিচারকাজে সর্বোচ্চ সততা দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হবে’।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে ২৫শে ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায় এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এই কথা বলেন।

চট্টগ্রামের মাননীয় মহানগর দায়রা জজ মোঃ শাহেনূর চট্টগ্রাম থেকে বদলী হওয়ায় জেলা আইনজীবি সমিতির উদ্যোগে এই সংবর্ধনা আয়োজন করা হয়।

সমিতির নব নির্বাাচিত সভাপতি এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সম্মানিত সদস্য ও সমিতির সাবেক সভাপতি এড. ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী, সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ আল মাহমুদ ফায়জুল কবির, চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট এ কিউ এম নাছির উদদীন, চীফ জুডিসিয়্যাল ম্যাজিস্ট্রেট মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান, সমিতির সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, পরিষদের কর্মকর্তা ও নির্বাহী সদস্যসহ বিপুল সংখ্যক আইনজীবী। সমিতির সহসাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইয়াছিন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

অনুষ্ঠানে সংবর্ধেয় অতিথিকে সমিতির মনোগ্রাম খচিত সম্মাননা ক্রেস্ট ও ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করা হয়।
সংর্বধনা সভায় বিদায় অতিথি মহানগর দায়রা জজ মোঃ শাহেনূর বলেন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় বিচার বিভাগের প্রতিটি সদস্যকে আন্তরিকভাবে কাজ করতে হবে। শত প্রতিকুলতার মধ্যেও আমাদেরকে সততার নির্দশন রাখতে হবে। কোন অবস্থাতেই বিচার বিভাগের মান সম্মান ঐতিহ্য ক্ষতিগ্রস্থ হয় এমন কাজ করা থেকে আমাদের সকলকে বিরত থাকতে হবে।

তিনি বলেন, বিচারক অবশ্যই সৎ। এতে অন্য কোন কিছু চিন্তা করার সুযোগ নেয়। বিচারকদের বিচারকাজে সর্বোচ্চ সততা দিয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। জাতি ও বিচার প্রার্র্থী জনগোষ্ঠী আমাদের কাছে এইটাই প্রত্যাশা করে। জনাব মোঃ শাহেনূর বলেন, জনসংখ্যা বৃদ্ধি হয়েছে বাস্তবতার নিরিখে মামলা ও তুলনামূলকভাবে অনেক বেড়েছে। সে দিক বিবেচনা করে বর্তমানে বিচার ব্যবস্থায়ও ব্যাপক পরিমাণ সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। বর্তমানে অনেক মেধাবী বিচারক বিচার ব্যবস্থায় যোগ দিয়েছেন। তাদের পদচারণায় বিচার বিভাগ ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় ভ’মিকা রাখবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সম্মানিত সদস্য সমিতির সাবেক সভাপতি এড. ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বলেন, বেঞ্চ এবং বারের সৌহাদ্যপূর্ণ পরিবেশের মাধ্যমে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার পথ সুগম করতে হবে। কোনভাবেই এর ব্যত্যয় ঘটানো যাবে না।

সভাপতির বক্তব্য এড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, মহানগর দায়রা জজ বিচারক হিসেবে একজন সৎ ও যোগ্য ব্যাক্তি হিসেবে তার কর্মকালে কাজ করেছেন। তার বিচারিক মনোভাবের কারণে আজকে আমরা তাঁকে সংর্বধনা প্রদান করছি। আমি আশা করব প্রতিটি বিচারক ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় সর্বোচ্চ সততা দিয়ে কাজ করবেন।

 

মতামত দিন