ধর্মান্ধ, একাত্তরের ঘাতকরা একই সূত্রে গাঁথা

ধর্মান্ধ আর একাত্তরের ঘাতকরা একই সূত্রে গাঁথা বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ।

তিনি বলেন, আমরা দেখেছি ৭১ এ’ ধর্মের দোহাই দিয়ে মুক্তমনা দেশপ্রেমিক লোকদের হত্যা করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশে ধর্মান্ধতার রাজনীতির বীজ বপন করেছিলো জিয়াউর রহমান। ড. জাফর ইকবালের ওপর জঙ্গি হামলা আমাদের সমাজকে কলুষিত করেছে।

সোমবার (৫ মার্চ) দুপুরে ঢাকা ক্লাবের স্যামসন এইচ চৌধুরী হলে একটি সাপ্তাহিক পত্রিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলেন, মৌলবাদ-ধর্মান্ধতা থেকে জাতি বেরিয়ে আসতে চায়। প্রত্যেকটা মানুষের মুক্তচিন্তার অধিকার রয়েছে। মুক্তচিন্তা নিয়ে কারো অধিকারে আঘাত লাগলে তিনি আইনের আশ্রয় নিতে পারেন। যারা জঙ্গি হামলার মত কর্মকাণ্ড করছে তারা দেশকে অন্ধকারের দিকে নিয়ে যেতে চায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর দেশের জঙ্গিবাদ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এসেছেন। দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে গেছেন।

হানিফ বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর দেশকে জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করেছিল। ক্ষমতায় এসে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা-নির্যাতন চালিয়েছিল বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার। বিএনপি-জামায়াত একই স্থান থেকে পরিচালিত হয়। তারা বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়।

অনুষ্ঠানের উপস্থিত ছিলেন রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা: দিপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ।

মতামত দিন