লক্ষ্মীপুরে জামায়াত নেতার বাড়ীতে গার্মেন্টকর্মীকে আটকিয়ে রেখে গণধর্ষন!

অ আ আবীর আকাশ,লক্ষ্মীপুর:

লক্ষ্মীপুরের শাহাপুর পৌরশহীদ স্মৃতি সড়কের জামায়াতের সুরা সদস্য মাওলানা রুহুল আমিন পাটোয়ারীর বাড়ীতে সাথি নামের এক গার্মেন্টস কর্মীকে দুই দিন যাবত আটকে রেখে গণধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে। ওই বাড়ীতে অবস্থানরত পার্বতীনগর মাছিমপুরের মুহুরী ফেরদৌস, বেলাল সহ ৪/৫ জন তার উপর এ অমানবিক নির্যাতন চালায় বলে সাংবাদিকদের ওই গার্মেন্টস কর্মী জানায়। নির্যাতিতা ওই গার্মেন্টস শ্রমিক ৬ মাসের অন্ত:সত্ত্বা সহ স্বামীর খোঁজে চট্রগ্রাম থেকে লক্ষ্মীপুরে আসে। আশ্রয় দেওয়ার নামে লম্পটরা প্রতারণা সহ তার এই সর্বনাশ করে বলে জানায়। ঘটনার পর বুধবার সন্ধ্যায় স্থানীয়রা তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি সহ সন্ধ্যার পর এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

নির্যাতনের শিকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই গার্মেন্টর্স শ্রমিক, গৃহবধুর অভিযোগ, স্বামীর সন্ধানে সোমবার দুপুরে তিনি লক্ষ্মীপুরে আসেন। তাকে সহযোগিতা ও আশ্রয়ের কথা বলে জামায়াত নেতার মালিকানাধীন ফেরদৌস তার ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়।এরপর রাত ৮টার দিকে ওই বাসায় তাকে কয়েকজন জোরপূর্বক ধর্ষন ও ধর্ষনের ব্যার্থ চেষ্টা চালায়। এরপর আবার রাতে সাড়ে ১১টার দিকে ফেরদৌস সহ ৩ জন ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষনের জন্য মারধর করে।পরে দফায় দফায় ধর্ষন করে। এতে সে অচেতন হয়ে পড়ে। জ্ঞান ফিরে সে পালানোর চেষ্টা করলে তাকে মারধর সহ ক্ষতবিক্ষত করে ফেলে। এক পর্যায়ে সে পালিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় পরদিন নিকট আত্মীয়ের বাড়ীতে আশ্রয় নিলে বুধবার সন্ধ্যায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে এ বিষয়ে কয়েকজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেয় নির্যাতিত ওই গৃহবধু। এ দিকে ঘটনার পর থেকে ফেরদৌস, বেলাল সহ অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে। ফলে পুলিশ কাউকেই আটকাতে পারেনি বলে অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ লোকমান হোসেন জানান, ঘটনাকে ঘিরে ভিকটিমের অভিযোগ গ্রহন, ডাক্তারী পরীক্ষা সহ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাাবস্থা নেয়ার কথা জানান।

মতামত দিন