বাংলাদেশের সাবেক কোচ হাথুরুসিংহের কোচিং ক্যারিয়ারের স্মরণীয় মুহূর্ত

বাংলাদেশের সাবেক কোচ চন্দ্রিকা হাথুরুসিংহের একটি সাক্ষাৎকার নিয়ে তোলপাড় চলছে দেশের ক্রিকেটাঙ্গনে।

ক্রিকবাজকে দেওয়া দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে বিসিবি প্রেসিডেন্টের সমালোচনার পাশাপাশি বলেছেন তার কোচিং ক্যারিয়ারের স্মরণীয় মুহূর্ত।
সাক্ষাতকারের একপর্যায়ে হাথুরুকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, তার কোচিং ক্যারিয়ারের স্মরণীয় মুহূর্ত নিয়ে। হাথুরু বললেন, অনেকগুলো মুহূর্তই আছে। তবে একটি ঘটনা আমাকে বিশেষভাবে নাড়া দিয়েছিল। একবার আমি অস্ট্রেলিয়ার সিডনির ওয়েস্টফিল্ড শপিং সেন্টারের সামনে হাঁটছিলাম। হঠাৎ একটি তরুণ এসে আমাকে জড়িয়ে ধরল। আমি কিছুটা ভয় পেয়ে গেলাম। তাকে সরিয় দিয়ে বন্ধনমুক্ত হলাম।

তখন সেই তরুণ হেসে আমাকে বলল, ‘দেখ, আমি একজন বাংলাদেশি।

তুমি আমাদের ক্রিকেটের জন্য যা করেছ, সে জন্য অফিসে আমার মাথা উঁচু হয়েছে। তোমাকে কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা নেই। ‘
হাথুরু বলেছেন, এটি আমার জন্য অসাধারণ একটি ঘটনা ছিল। আমার মনে হয়েছে, বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নয়নে তাহলে কিছু ভূমিকা আমি রাখতে পেরেছি। একই ধরনের অনুভূতি আমি পেয়েছিলাম ১৯৯৬ বিশ্বকাপ জয়ের পর। তখন শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটপ্রেমীরা আমাদের এভাবেই ভালোবাসত।

এরপরই আরো একটি চমকানো কথা বলেন বর্তমান শ্রীলঙ্কান কোচ। ক্রিকবাজের পক্ষ থেকে হাথুরুকে কোচিং ক্যারিয়ারের কোনো একটি বিশেষ মুহূর্ত সম্পর্কে বলতে বলা হলে তিনি বলেন, পি সারা ওভালে তার নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যে দিন বাংলাদেশ প্রথম টেস্ট জিতেছিল সেই দিনটির কথা। এটি তার কোচিং ক্যারিয়ারের অন্যতম প্রাপ্তি।

হাথুরুর ভাষায়, ‘শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট জয় আমার কোচিং ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মুহূর্ত। আসলে ম্যাচটি আমার জন্য খুব আবেগের ছিল। কারণ আমি শ্রীলঙ্কার নাগরিক, আর পি সারা ওভাল আমার ঘরের মাঠ। তা ছাড়া বাংলাদেশের শততম টেস্ট ছিল সেটি। এমন এক ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দেওয়া দুর্দান্ত এক অর্জন। শ্রীলঙ্কা টেস্টে অপেক্ষাকৃত ভালো। আমি ব্যক্তিগতভাবে খুব তৃপ্ত হয়েছিলাম। ‘

মতামত দিন