আমরণ অনশনে নন-এমপিও শিক্ষকরা

টানা পাঁচ দিন ধরে অবস্থান কর্মসূচি চলার পর এমপিও ভুক্তির দাবিতে আমরণ অনশন শুরু করছেন নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।

আজ রবিবার সকাল ৯টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে তারা এ অনশন শুরু করেন। নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ডাকে এ কর্মসূচি চলছে।

এর আগে গত ২৬ ডিসেম্বর থেকে একই জায়গায় অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষকরা। তবে গত শুক্রবার ফেডারেশনের নেতারা বৈঠক করে রবিবার থেকে অনশন কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নেন।

ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মাহমুদুন্নবী বলেন, সকাল ১০টা থেকে আমরা আমরণ অনশন শুরু করেছি। আমাদের একটাই দাবি, সেটা হলো সরকারস্বীকৃত ৫ হাজার ২৪২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৮০ হাজার শিক্ষক-কর্মচারীকে এমপিওভুক্ত করতে হবে।

তিনি জানান, ২০১১ সাল থেকে সরকার শুধু আশ্বাসই দিচ্ছে। তাই এবার দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রাণ গেলেও তাঁরা অনশন থেকে সরবেন না। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা চান তাঁরা। গতকাল পঞ্চম দিনেও অবস্থান কর্মসূচিতে কয়েকশ’ শিক্ষক-কর্মচারী অংশ নেন। আজ অনশনে যোগ দিতে বিভিন্ন স্থান থেকে এক হাজারের বেশি শিক্ষক-কর্মচারী ঢাকায় আসছেন।

অবস্থানরত শিক্ষক নেতারা জানান, এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মতো নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও একই নিয়মনীতিতে পরিচালিত হয়। একই শিক্ষাক্রম, পাঠ্যক্রম ও প্রশ্নপদ্ধতি অনুসরণ করে। শিক্ষার্থীরাও বোর্ড থেকে একই মানের সনদ অর্জন করে। অথচ বেতন পান না তাঁরা। যদিও দেশে বিভিন্ন পর্যায়ে ২১ লাখ চাকরিজীবীর বেতন বেড়েছে।

এদিকে নয়টি শিক্ষক-কর্মচারী সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত যৌথ মোর্চা-শিক্ষক কর্মচারী সংগ্রাম কমিটি শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণসহ ১১ দফা দাবিতে শিগগিরই ধর্মঘটে যাচ্ছে। রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তাদের আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করার কথা রয়েছে।

মতামত দিন